চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ২ ডিসেম্বর ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

গাংনীতে পাটবীজ অফিস কোথায়?

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ২, ২০২০ ১০:৫০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

প্রতিবেদক, মেহেরপুর:
মেহেরপুরের গাংনীতে পাটবীজ উন্নয়ন ও সংরক্ষণ অফিসের কোনো অস্তিস্ত খুঁজে পাওয়া যায়নি। উপজেলা শহরের কোথাও পাটবীজ অফিসের কোনো সাইনবোর্ড চোখে পড়েনি। তবে পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা পদে মেহেদী হাসান নামের একজন কর্মরত আছেন। সাইনবোর্ড ছাড়াই কীভাবে অফিস করছেন ও সরকারি টাকা পকেটস্থ করছেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে জনমনে।
স্থানীয়ভাবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মেহেদী হাসান নিজেকে বড় মাপের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে যা খুশি তাই করেন। কখনও উপজেলার কোনো গ্রামের পাটচাষিদের সাথে আলাপ-আলোচনা বা পাট চাষে কাউকে উদ্বুদ্ধ করেন না। ঘরে বসেই সারা দিন বহিরাগত মেয়েদের নিয়ে খোশ গল্পে মেতে থাকেন। বেতবাড়ীযা গ্রামের পাটচাষি হাসান আলী জানান, ‘আমরা কখনও পাটবীজ কর্মকর্তার চেহারা দেখিনি। কখনও গ্রামে এসে পাটচাষিদের নিয়ে আলাপ-আলোচনা করেন না। গাংনীতে কোথায় অফিস তাও জানি না।’ একই কথা জানালেন সাহারবাটি গ্রামের পাটচাষি নজরুল ইসলাম।
উপজেলা কৃষি অফিসার কে এম শাহাবুদ্দীন আহমেদ ও কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার রাসেল রানা জানান, ‘পাটবীজ কর্মকর্তা আমাদের সাথে কখনও পাট চাষ নিয়ে খোঁজখবর নেয় না। এ বছর কত হেক্টর জমিতে পাট চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে, তাও তিনি জানেন না।’
অফিসে সাইনবোর্ড নেই কেন, এমন প্রশ্নের উত্তর জানতে পাট কর্মকর্তা মেহেদী হাসানের সাথে মোবাইলে আলাপকালে তিনি জানান, ‘বেশকিছু দিন যাবত সাইনবোর্ডটি নষ্ট হয়ে গেছে। আপাতত সাইনবোর্ডটি অফিসে নেই। আমি গাংনীতে প্রায় এক বছরকাল দায়িত্ব পালন করছি। এর আগেও সাইনবোর্ড ছিল না।’ গাংনী উপজেলার কোনো ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বা কোন গ্রামের লোকের সাথে আপনার পরিচয় হয়েছে কি না বা মাঠ পর্যাায়ে কি চাষিদের সাথে যোগাযোগ রাখেন কি না, এমন প্রশ্ন করলে তিনি প্রশ্নটা এড়িয়ে গিয়ে বলেন, ‘আমি সব সময় যেতে পারি না।’ সাহারবাটি ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক জানান, ‘আমি কখনও গাংনী উপজেলা পাট উন্নয়ন কর্মকর্তার অফিস দেখিনি।’
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আর এম সেলিম শাহনেওয়াজ জানান, পাটবীজ অফিসের সাইনবোর্ড নেই কেন, বিষয়টি নিয়ে কর্মকর্তার সাথে আলাপ করব।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।