চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ১১ জুন ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

গাংনীতে দন্ত চিকিৎসককে নির্যাতনের অভিযোগ

সমীকরণ প্রতিবেদন
জুন ১১, ২০২০ ৯:০০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

গাংনী অফিস:
গাংনীতে শরিকানা জমিকে কেন্দ্র করে উম্মে হাবিবা নামের একজন দন্ত চিকিৎসককে শারীরিকভাবে নির্যাতন করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে ওই ডেন্টিস্ট-এর ভাই পলাশের বিরুদ্ধে। গতকাল বুধবার দুপুরে গাংনী বিশ্বাসপাড়ায় এ নিযার্তনের অভিযোগ তুলে নিজের নিরাপত্তা দাবি করেন উম্মে হাবিবা।
অভিযোগে জানা গেছে, গাংনী পৌর শহরের নুরুল ইসলামের মেয়ে উম্মে হাবিব ঢাকাতে দাঁেতর চিকিৎসক হিসেবে নিয়োজিত রয়েছেন। সেখানে নিজের চেম্বারও রয়েছে। ঢাকা থেকে নিজের পৈত্রিক ভিটা গাংনীর বিশ্বাসপাড়ায় আসলে গতকাল বুধবার দুপুরে তার আপন ভাই পলাশ জমির শরিকানা নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বাঁশ দিয়ে আঘাত করতে থাকে। এসময়ে তার বাবা নুরুল ইসলাম বাঁধা দেয়। এঘটনায় তার পিতা নুরুল ইসলামকে ধাক্কা মেরে দেয় ছেলে পলাশ। এঘটনায় উম্মে হাবিবা নিজেকে বাঁচাতে চিৎকার-চেচামেচি করতে থাকলে স্থানীয়রা উপস্থিত হয়। কিন্তু স্থানীয় মানুষেরা বিষয়টি মিমাংসা করতে না পারায় পরে গাংনী থানা পুলিশের একটি দল ঘনাস্থলে গিয়ে পুরো বিষয়টি নিয়ন্ত্রণে নেয়। এঘটনায় গতকাল রাতেই গাংনী থানায় উম্মে হাবিবা ও তার বাবা নুরুল ইসলাম উপস্থিত হয়ে নিজেদের নিরাপত্তা দাবি করেন। এব্যাপারে গাংনী থানায় একটি অভিযোগও দায়ের করেন নুরুল ইসলাম।
উম্মে হাবিবা জানান, আমার ভাইকে গ্রেফতার বা হয়রানী নয় প্রকৃত পক্ষ আমরা আমাদের নিরাপত্তা চাই। আমরা ভালোভাবে আমাদের বাড়িতে বসবাস করতে চাই। আর এজন্য আমাদের নিরাপত্তা দরকার। আমরা নিরাপদে থাকতে চাই সেই ব্যবস্থা করার দাবি জানাচ্ছি।
গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ওবাইদুর রহমান জানান, নুরুল ইসলামের একজন একটি অভিযোগ দিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে উভয় পক্ষকে ডেকে গাংনী থানায় বসা হবে। তাছাড়া গাংনী থানা এলাকায় বসবাসরত সকল সাধারণ মানুষের জান-মালের নিরাপত্তার দায়িত্ব আমাদের।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।