চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ২৯ নভেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

গাংনীতে খাদ্যশস্য সংগ্রহে প্রস্তুতি সভা

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
নভেম্বর ২৯, ২০২২ ৯:০৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

সমীকরণ প্রতিবেদন: মেহেরপুরের গাংনীতে অ্যাপ ব্যবহারের মাধ্যমে আমন ধান সংগ্রহে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা খাদ্যনিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের আয়োজনে গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গাংনী উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মৌসুমী খানমের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ খালেক।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গাংনী পৌরসভার মেয়র আহম্মেদ আলী। উপজেলা খাদ্য অফিসার মনোয়ার হোসেনের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ লাভলী খাতুন, কাথুলী ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান রানা, মটমুড়া ইউপি চেয়ারম্যান সোহেল আহমেদ, রাইপুর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম সাকলায়েন সেপু, বামুন্দি ইউপি চেয়ারম্যান ওবাইদুর রহমান কমল, ধানখোলা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, সাহারবাটি ইউপি চেয়ারম্যান মশিউর রহমান, ষোলটাকা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার পাশা, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কৃষক প্রতিনিধি ওয়াসিম সাজ্জাদ লিখন, উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান পলাশসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা।

জানা গেছে, দেশের ৬৪ জেলার নির্বাচিত ২৭২টি উপজেলায় ‘কৃষক অ্যাপ’-এর মাধ্যমে কৃষকদের কাছ থেকে খাদ্যশস্য সংগ্রহ করবে সরকার। এর মধ্যে গাংনী উপজেলায় অ্যাপের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করে ধান, গম ও চাল বিক্রি করতে পারবেন সরকারি মূল্যে। কৃষকের উৎপাদিত খাদ্যশস্য সরাসরি বিক্রির মাধ্যমে ন্যায্যমুল্য পেতে চালু করা হয়েছে ‘কৃষকের অ্যাপ’ অনলাইনে আবেদন করতে হলে এনআইড কার্ড, কৃষি থাকা বাধ্যতামূলক। আজ থেকে আগামী ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত আবেদন করতে অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন কৃষকরা। পরে লটারির মাধ্যমে কৃষকদের নির্বাচিত করা হবে। যাদের নাম লটারিতে উঠবে, সেই সকল কৃষকরাই শুধুমাত্র তাঁদের উৎপাদিত খাদ্যশস্য বিক্রি করতে পারবেন।

কৃষকদের অনলাইনের বিস্তারিত জানতে ৩৩৩ নম্বরে কল করলে বিস্তারিত সহায়তা পাওয়া যাবে। তবে কৃষকরা কীভাবে আবেদন করবেন, কী কী সুবিধা ও অসুবিধা রয়েছে, এ নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন করা হলে তোপের মুখে পড়েন উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলেই বলেন, প্রস্তুতিমূলক সভা হয়েছে অপ্রস্তুতিতে। এতে কৃষকদের ভোগান্তি বাড়বে এবং অনেক কৃষক আবেদন থেকে বঞ্চিত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন অতিথিবৃন্দ।

গাংনী উপজেলা খাদ্য অফিস জানায়, এ বছর আমন ধানের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১১২০ টাকা মণ। লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৮০৭ মেট্রিক টন। চালের মুূল্য নির্ধারণ হয়েছে ১৬৮০ টাকা মণ। লক্ষ্যমাত্রা ১১৯ মেট্রিক টন। সংগ্রহের সময় ১৭ নভেম্বর থেকে আগামী বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।