চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ৯ আগস্ট ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

গরুর জন্য হবে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ’

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ৯, ২০১৬ ৪:০৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সমীকরণ ডেস্ক: গরু নিয়ে সবসময়ই বিবাদ হয়েছে। আর এই গরুর জন্যই হবে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ। এমন মন্তব্য করেছেন ভারতের মধ্যপ্রদেশের মহামণ্ডলেশ্বর স্বামী অখিলেশ্বরানন্দ গিরি। তিনি মধ্য প্রদেশ গোপালন ইভাম পশুধান সম্বর্ধন বোর্ডের নির্বাহী পরিষদের চেয়ারম্যান। গো-রক্ষণের জন্য সুপরিচিত মধ্য প্রদেশের গরু সংরক্ষণ ও সুরক্ষাবিষয়ক দায়িত্ব এই সংগঠনের ওপর ন্যস্ত। এ খবর দিয়েছে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। খবরে বলা হয়, অখিলেশ্বরানন্দ গিরি প্রথম ধর্মীয় ব্যক্তি হিসেবে মধ্য প্রদেশের গরু সংরক্ষণবিষয়ক বোর্ডটির প্রধান হয়েছেন। সন্নাসী দীক্ষা গ্রহণের ১২ বছর পর ২০১০ সালে তিনি নিরঞ্জনী আখড়া থেকে মহামণ্ডলেশ্বর উপাধি লাভ করেন। ৬১ বছর বয়সী অখিলেশ্বরানন্দ বলেন, ‘গরু সবসময়ই বিবাদের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। পুরানে এর অনেক উদাহরণ রয়েছে। ১৮৫৭ সালের প্রথম স্বাধীনতা আন্দোলনও হয়েছিল গরু নিয়েই।’ গো-রক্ষকদের সাম্প্রতিক কার্যক্রম নিয়ে তিনি বলেন, ‘গো-রক্ষকরা যখন মৃত বা আহত গরু যানবাহনে করে পরিবহন করতে দেখেন তাদের ক্ষুব্ধ হওয়া স্বাভাবিক। কারণ এটা তাদের কাছে আবেগের একটি বিষয়। তবে তাদের আইন নিজেদের হাতে নেয়া উচিত নয়। এ ধরনের কোনো যানবাহন আটকে দিতে পারলে তাদের উচিত পুলিশ আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করা। যখন সব রাজ্য গরু জবাইয়ের বিরুদ্ধে কঠোর আইন প্রণয়ন করবে তখন রাজ্যের সীমান্ত দিয়ে গরু চোরাচালান অসম্ভব হয়ে পড়বে।’ দেশি গরুর বিশেষ ক্ষমতায় পূর্ণবিশ্বাসী অখিলেশ্বরানন্দ বলেন, গরুর দুধ, মূত্র ও গোবরের ঔষধি গুণ রয়েছে যা দিয়ে মৃগী বা ক্যান্সারের মতো রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করা সম্ভব। গরু সংরক্ষণ এবং এ বিষয়ে গবেষণা ও সচেনতা বৃদ্ধির জন্য আরও অনেক কাজ করার বাকি রয়েছে বলে মনে করেন তিনি। প্রাদেশিক মুখ্যমন্ত্রী গরুবিষয়ক পৃথক মন্ত্রণালয় গঠনে নীতিগতভাবে সম্মত হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

 

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।