চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ২৩ মার্চ ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

গভীর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড় হয়নি : উঠে গেছে স্থলভাগে

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
মার্চ ২৩, ২০২২ ৯:৪৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সমীকরণ প্রতিবেদন:

বঙ্গোপসাগর ও আন্দামান সাগরের কাছে অবস্থারত গভীর নিম্নচাপটি শেষ পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়নি। গভীর নিম্নচাপ আকারেই এটি মিয়ানমারের পাথেইন উপকূল দিয়ে স্থলভাবে উঠে গেছে। ঘূর্ণিঝড় হয়নি বলে এখন এর নামও অশনি হবে না। বঙ্গোপসাগর ও আরব সাগরে আরেকটি ঝড় হলে তখনই নামটি দেয়া হবে। এটা নিয়ে চলতি মার্চ মাসে বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ থেকে দু’টি নিম্নচাপ এরপর গভীর নিম্ন্নচাপ হয়ে ঘূর্ণিঝড় হওয়ার আগেই দুর্বল হয়ে গেল পানিতে।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, মার্চ মাসে ঘূর্ণিঝড় হয় না। সাগরের পানি উষ্ণ থাকায় নিম্নচাপ পর্যন্ত শক্তিশালী হতে পারে লঘুচাপ কিন্তু এর আগে কোনো সময়ই মার্চ মাসে ঘূর্ণিঝড় হয়নি। স্কাইমেট ওয়েদারের তথ্য অনুসারে ১৯০০ সাল থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত মার্চ মাসে পাঁচটি নিম্নচাপ হয়েছিল কিন্তু তা থেকে কোনো ঘূর্ণিঝড় হয়নি। চলতি মাসে দু’টি নিম্ন্নচাপ যোগ হলে মার্চ মাসে বঙ্গোপসাগরে এ পর্যন্ত সাতটি নিম্নচাপ হয়েছে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, মিয়ানমারের পাথেইনের উপর দিয়ে স্থলভাগে তীব্র বাতাসের ঝাপটা ও বৃষ্টি নিয়ে স্থলভাগে উঠে গেছে এবং আরো সামনের দিকে অগ্রসর হয়ে লঘুচাপে রূপ নিয়ে তা স্থায়ীভাবে দুর্বল হয়ে যাবে।

কানাডা প্রবাসী আবহাওয়াবিদ মোস্তফা কামাল জানিয়েছেন, ঘুর্ণিঝড়ের ঠিক আগের অবস্থা গভীর নিম্নচাপ আকারেই প্রক্রিয়াটি মিয়ারমারের উপকূলে উঠতে শুরু করে। উপকূলে উঠার সময় গভীর নিম্ন্নচাপটির গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৩০ নটিকেল মাইল অর্থাৎ প্রায় ৫৬ কিলোমিটার বেগে উপকূলে উঠেছে। বাতাসের বেগ ঘণ্টায় এর চেয়ে আরো পাঁচ নটিকেল মাইল বেশি হলে অর্থাৎ ঘণ্টায় ৬৫ কিলোমিটার হলে এটাকে ঝড় হিসেবে চিহ্নিত করা হতো।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য দিয়ে ঝড়টি উপকূলে উঠে যাওয়ায় এর কিছুটা প্রভাব কক্সবাজারের সেন্টমাটি দ্বীপ বা এর আশপাশের সাগর বেশ উত্তাল ছিল। কক্সবাজার এলাকায় সাময়িক সময়ের জন্য খুবই হালকা বৃষ্টি হয়েছে বিচ্ছিন্নভাবে। তবে উপকূলীয় এলাকায় তেমন বৃষ্টি না হলে রংপুর বিভাগের ডিমলায় ৩১ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে গতকাল।

গভীর নিম্ন্ন চাপটির প্রভাবে আজ বাংলাদেশে আবহাওয়া কিছুটা পরিবর্তন হবে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম এবং সিলেট বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এ ছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। রাঙ্গামাটি ও রাজশাহী জেলাসহ সিলেট বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। সারা দেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে। গতকাল দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় সিলেটে ৩৬.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল শ্রীমঙ্গলে ১৭.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজধানী ঢাকায় সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৩৫.১ ও ২৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।