চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭

খোদা তোমায় ডাকতে জানি না

সমীকরণ প্রতিবেদন
সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৭ ৬:৫৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ধর্ম ডেস্ক: ইমান ও বিশ্বাসের সঙ্গে, কায়মনো বাক্যে আল্লাহ তায়ালাকে ডাকতে পারলে, আল্লাহ অবশ্যই সে ডাকে সাড়া দেন। বিশুদ্ধ নিয়তে একাগ্রচিত্তে আল্লাহর কাছে মনের আরজি পেশ করতে পারলে, নিঃশব্দে নীরবে হৃদয় নিংড়ানো চোখের পানি ছেড়ে দিতে পারলে, মহান আল্লাহ সে আরজি পূরণ না করে পারেন না। কিন্তু আমরা সেভাবে হৃদয় উজাড় করে ডাকতে পারি না। যারা পারছেন তাদের ডাকে মহান আল্লাহর সাড়াও দিচ্ছেন। কোনো শিশু সন্তান যখন বিদ্যালয় থেকে বাড়ির উঠোনে বা গেটে এসে মাকে বলে- আম্মু ভাত দাও, তখন মা বলেন, ভাত তো দেবই আগে হাত-মুখ ধুয়ে এসো। আর কোনো সন্তান যখন ঘরে ঢুকে বলে- আম্মু ভাত দাও, তখন মা বলেন, দিচ্ছি বাবা বসো। আবার কোনো সন্তান যখন মায়ের একেবারে কাছে এসে কাকুতি-মিনতি করে বলে- আম্মু ভাত দাও না, খুব ক্ষুধা লেগেছে। তখন মা সঙ্গে সঙ্গে সন্তানের ডাকে সাড়া দিতে তৈরি হয়ে যান এবং নিজের কাজ রেখে সন্তানকে যতœ করে ভাত বেড়ে দেন। তেমনই মহান আল্লাহর কাছাকাছি গিয়ে কাকুতি-মিনতি করে বলতে পারলেও আল্লাহ তার ডাকে সাড়া দিতে তৈরি হয়ে যান। সন্তান যখন মায়ের কাছে গিয়ে আকুতিভরা কণ্ঠে খাবার চায়, তখন মায়ের বুকের দরিয়ায় মায়ার ঢেউ জেগে ওঠে। তেমনই বান্দা যখন কায়মনো বাক্যে চোখের পানি ছেড়ে আল্লাহর কাছে ক্ষমা চায়, তার প্রয়োজন তুলে ধরে, তখন আল্লাহর অপার দরিয়ায় ক্ষমা ও রহমতের ঢেউ জেগে ওঠে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।