চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ১৪ নভেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

খুশির দিন সামনে আরও দেখবে ব্রাজিল : কোচ

সমীকরণ প্রতিবেদন
নভেম্বর ১৪, ২০১৬ ৯:১৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Brazil-Coach-bg20161112114623

খেলাধুলা ডেস্ক: বিশ্বকাপ বাছাইয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে দেওয়ার পরও পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা ব্রাজিল কোচ তিতে অহংবোধে ভুগছেন না। নিজের ছাত্রদের আরও উন্নতির জায়গা খুঁজে বেড়াচ্ছেন এই সেলেকাও কোচ। বেলো হরিজন্তেতে ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপের দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইয়ে আর্জেন্টিনাকে ম্যাচের শুরু থেকেই চেপে ধরেছিল তিতের শিষ্যরা। মেসির আর্জেন্টিনাকে ৩-০ ব্যবধানে হারায় ব্রাজিল। অথচ এ মাঠেই ছিল ব্রাজিলের ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে বড় লজ্জার পরাজয়টি। দুই বছর আগে ঘরের মাঠের বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে এই মাঠেই জার্মানির কাছে ৭-১ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল লুইস ফেলিপ স্কোলারির ব্রাজিল। তারপর এই প্রথম মিনেইরাওয়ে আসা।স্কোলারির পর ব্রাজিলের দায়িত্ব নেন কার্লোস দুঙ্গা। তার অধীনে কোপা আমেরিকার আসর থেকে আগেই বিদায় নিতে হয়েছিল সেলেকাওদের। এরপর তিতের অধীনে চলে যায় নেইমার বাহিনী। আর তার অধীনে খেলা পাঁচ ম্যাচের সবগুলোতেই জিতেছে ব্রাজিল। তিতেও নিজের সাফল্যকে মেনে নিচ্ছেন। পাশাপাশি নিজের ছাত্রদের পারফর্মে আরও উন্নতির জায়গা খুঁজছেন তিনি। আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে মাটিতে পা রাখা ব্রাজিল কোচ জানান, ‘আমার অধীনে পাঁচটি ম্যাচ হয়েছে। দলের পারফরমেন্সে আমি খুশি। এই গ্রুপে পাঁচ ম্যাচের পাঁচটিতেই জয় প্রত্যাশিত ছিল না। এটা আমার কল্পনারও বাইরে। তবে, দলের খেলোয়াড়দের আরও উন্নতির জায়গা রয়েছে। আমি বিশ্বাস করি তারা আরও ভালো করতে পারবে।’ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ৩-০ গোলের স্কোরলাইন তিতেকে খুব একটা নাড়া দিচ্ছে না। অভিজ্ঞ এই কোচ জানান, ‘পুরো দলই দুর্দান্ত খেলেছে। পুরো ম্যাচে ভালো খেলেছে ফিলিপে কুতিনহো, পাওলিনহো। আর নেইমারের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দুর্দান্ত খেলেছে গ্যাব্রিয়েল জিসাস। সত্যি বলতে এত বড় জয় আমি আশা করিনি। বাছাইপর্বে সব ম্যাচই কঠিন। তার ওপর এটা ছিল আর্জেন্টিনা!’ ব্রাজিল কোচ আরও যোগ করেন, ‘আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জয়টাকে আমি গুরুত্ব দিচ্ছি। মিথ্যা বিনয় দেখানোর কিছু নেই। এই জয়ে আমি অনেক খুশি। তবে, আমার বিশ্বাস এমন খুশির দিন সামনে হয়তো আরও অনেক দেখবে ব্রাজিল ফুটবল। সেক্ষেত্রে আমার ছাত্রদের আরও উন্নতি করতে হবে, যা আমি খুঁজে বেড়াচ্ছি।’ ১১ ম্যাচ খেলা ব্রাজিল ৭ জয়, ৩ ড্র আর এক পরাজয়ে সর্বোচ্চ ২৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে। পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের থলিতে আছে ২৬টি গোল, হজম করেছে ৯টি গোল। সমান ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে উরুগুয়ে, ১৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনে কলম্বিয়া, ১৭ পয়েন্ট নিয়ে চারে ইকুয়েডর আর ১৭ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে চিলি। ১১ ম্যাচ খেলা আর্জেন্টিনার সংগ্রহ ১৬ পয়েন্ট। চার ম্যাচে জয়, সমান ম্যাচে ড্র আর তিনটি ম্যাচে পরাজয় মেনে নেওয়া আর্জেন্টাইনদের জালে ১২বার বল প্রবেশ করে, যেখানে প্রতিপক্ষের জালে ১১বার বল জড়াতে পেরেছে মেসির দল।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।