ক্রীড়াপ্রেমী বলেই সব খেলার প্রতি বঙ্গবন্ধুর দুর্বলতা ছিল

53

চুয়াডাঙ্গায় বঙ্গবন্ধু আন্তঃউপজেলা ফুটবল টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরণকালে এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার
নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু আন্তঃউপজলো ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা তিনটায় চুয়াডাঙ্গা পুরাতন স্টোডিয়াম মাঠে এই ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে চুয়াডাঙ্গা জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। ফাইনাল খেলায় চুয়াডাঙ্গা ‘এ’ দল ও চুয়াডাঙ্গা ‘বি’ দল অংশগ্রহণ করে। দুই দলের হাড্ডা-হাড্ডি লড়ায়ে ২-১ গোলের ব্যবধানে চুয়াডাঙ্গা ‘এ’ দল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে।
খেলা শেষে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু খেলাধুলার প্রতি উৎসাহিত ছিলেন। ক্রীড়াপ্রেমী বলেই সব খেলার প্রতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দুর্বলতা ছিল। তিনি জানান, ফুটবলের প্রতি জাতির জনকের দুর্বলতা একটু বেশি ছিলো চুয়াডাঙ্গায় মাঠে মাঠে এখন আর খেলাধুলা হয় না। আমি চুয়াডাঙ্গা মহাকুমা থেকে শুরু করে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পরেও ১৮-১৯ বছর ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। সে সময় মাঠে খেলোয়াড়দের জায়গা দেওয়া যেত না। আর এখন চুয়াডাঙ্গায় পাঁচটি মাঠ পড়ে রয়েছে। কিন্তু খেলোয়াড় পাওয়া যায় না। আজকে ফাইনাল খেলা কিন্তু খেলার মধ্যে কোনো উত্তেজনা নেই। কারণ একটায় চুয়াডাঙ্গায় কোনো খেলা নেই, লীগ নেই। তাই তারা খেলা ও অনুশীলন করার সুযোগ পায় না।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কনক কান্তি দাস, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ সুলতানারা রত্না ও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) লুৎফুল কবীর। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বিপুল আশরাফ, সাবেক কৃতী ফুটবলার ও ফিউচার ফুটবল একাডেমির কোচ মাহমুদুল হক লিটন, মিঠু জোয়ার্দ্দার, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুন্নাহার কাকুলী, সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাহাজাদী মিলি, ভাইস চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান মাসুম, চুয়াডাঙ্গা ডিএফএর সহ-সভাপতি রেজাউল হক জোয়ার্দ্দার রেজা, ইমরান হুসাইন, ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান চাঁদ, সাবেক রেফারি ওয়ালিউল্লাহ সিদ্দিক, সাবেক গোলকিপার ওবায়দুল হক জোয়ার্দ্দার, জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক দীলরুবা খুকু, সাবেক ফুটবলার শহিদুল কদর জোয়ার্দ্দার, হাজী সেলিম জোয়ার্দ্দার, দিনার, হাসানসহ ডিএফএর সকল সদস্য সাবেক ও বর্তমান খেলোয়াড়বৃন্দ। টুর্নামেন্টটির সার্বিক আয়োজন করেন চুয়াডাঙ্গা ডিএফ-এর সভাপতি রফিকুল ইসলাম লাড্ডু। চ্যাম্পিয়ন দলের ম্যানেজার ছিলেন নাসির আহাদ জোয়ার্দ্দার ও কোচ ছিলেন হ্যাজি। রানার্সআপ দলের কোচ ছিলেন রিয়ান। এর আগে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি ৮টি দলের অংশগ্রহণে বঙ্গবন্ধু আন্তঃউপজলো ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করা হয়।