কেরুজ হ্যান্ড স্যানিটাইজারের উৎপাদন শুরু

165

‘সরকারি দপ্তরের চাহিদা পূরণের পর দ্রুত বাজারজাত করা হবে’
আওয়াল হোসেন/ মোজাম্মেল শিশির:
প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমনের হাত থেকে দেশের মানুষকে নিরাপদ রাখতে ও সার্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষায় দর্শনা কেরু অ্যান্ড কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাহেদ আলী আনসারীর উদ্যোগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদন শুরু করেছে মিলটির ড্রাগস ইউনিট কেরুজ ফার্মাসিউটিক্যালস। এ উপলক্ষে গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় কেরুজ ফার্মাসিউটিক্যালস চত্বরে দোয়া অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে কেরুজ হ্যান্ড স্যানিটাইজার বাজারজাতকরণের উদ্বোধন করেন মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাহেদ আলী আনসারী। উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন কেরুজ মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) শেখ শাহাবুদ্দিন, দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুবুর রহমানসহ কেরুজ চিনিকলের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তাগণ।
মিলটির ড্রাগস ইউনিট কেরুজ ফার্মাসিউটিক্যালস-এর কেমিস্ট ফিদা হাসান জানান, উৎপাদনের প্রথম দিনেই আড়াই হাজার বোতল (২৫০) লিটার হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদন করা হয়েছে। তবে উৎপাদনের সবটুকু বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের প্রধান কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। পর্যাপ্ত পরিমাণে বোতল না পাওয়ায় কেরুজ পণ্য বিলাতী মদ উৎপাদনের প্রয়োজনে ব্যবহৃত ছোট সাইজের ১৮০ মিলি (নিপ) বোতলে হ্যান্ড স্যানিটাইজার আজ উৎপাদন হতে পারে। বোতল আসলে আবার আগের বোতলে উৎপাদন করা হবে।
এ বিষয়ে কেরুজ ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাহেদ আলী আনসারী বলেন, উৎপাদনের পর থেকে বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের চাহিদা অনুযায়ী দ্রুততম সময়ে উৎপাদনের চেষ্টা করা হচ্ছে। স্বাস্থ্য বিভাগসহ এসব সরকারি প্রতিষ্ঠানের চাহিদা পূরণের পর দ্রুত সময়ের মাধ্যমে বাজারজাতকরণ প্রক্রিয়া করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।
বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্যশিল্প কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান সনৎ কুমার সাহা বলেন, ‘কেরু অ্যান্ড কো¤পানির উৎপাদিত স্যানিটাইজারের গুণগতমান নিশ্চিত করতে বাংলাদশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউট (বিএসটিআই)-এর ছাড়পত্র নিয়ে আমরা বাজারজাত শুরু করছি।’