চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ২৫ নভেম্বর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যার ঘটনায় ২১ জনের নামে মামলা

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
নভেম্বর ২৫, ২০২১ ৮:১৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সৈয়দ মো: সোহেলকে (৫২) নিজ কার্যালয়ে ঢুকে সহযোগীসহ গুলি করে হত্যার ঘটনায় মামলা হয়েছে। গত মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে সোহেলের ছোট ভাই সৈয়দ মো: রুমন বাদি হয়ে হত্যা মামলাটি করেন। মামলায় শহরের সুজানগর বৌবাজার এলাকার মৃত জানু মিয়ার ছেলে শাহ আলমকে প্রধান আসামি করে এজহার নামীয় ১১ জনসহ মোট ২১ জনকে আসামি করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আনয়ারুল আজিম।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- নবগ্রামের শাহ আলমের ছেলে সোহেল ওরফে জেল সোহেল, সুজানগর পানির ট্যাংকি-সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা রফিক মিয়ার ছেলে মো: সাব্বির হোসেন, সুজানগর পূর্বপাড়া বৌবাজারের মৃত কানু মিয়ার ছেলে সুমন, সংরাইশ এলাকার (রহিম ডাক্তারের গলি) কাকন মিয়া ওরফে চোরা কাকনের ছেলে সাজন, তেলিকোনা প্রাইমারি স্কুলের পূর্ব পাশের (মনির মিয়ার বাড়ি) আনোয়ার হোসেনের ছেলে আশিকুর রহমান রকি, সুজানগর পূর্বপাড়া বৌবাজার এলাকার মৃত জানু মিয়ার ছেলে আলম, সুজানগর পূর্বপাড়ার নূর আলীর ছেলে জিসান মিয়া, সংরাইশ (বেকারি গলি) এলাকার মঞ্জিল মিয়ার ছেলে মাসুম, নবগ্রামের মৃত সামছুল হকের ছেলে সায়মন ও সুজানগর বৌবাজার এলাকার কানাই মিয়ার ছেলে রনি।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, এলাকায় মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেয়ায় চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও মাদক কারবারিরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে সোহেলকে গুলি করে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। গত সোমবার বিকেলে হত্যাকাণ্ডটি ঘটে। এ সময় গুলিতে কাউন্সিলরের সহযোগী হরিপদ সাহাও নিহত হন। মঙ্গলবার জানাযা শেষে সোহেলের লাশ পাথুরিয়াপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ এখন আরো পাঁচজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তবে তারা এখন শঙ্কামুক্ত। সোহেল কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য ও ১৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়রও ছিলেন। ২০১২ ও ২০১৭ সালে তিনি কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। দ্বিতীয় মেয়াদে তিনি প্যানেল মেয়র হন। তিনি সুজানগর এলাকার সৈয়দ মো: শাহজাহান মিয়ার ছেলে। গতকাল বুধবার সকালে কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আনয়ারুল আজিম বলেন, জড়িতদের শনাক্ত ও গ্রেফতারে পুলিশের কয়েকটি টিম মাঠে কাজ করছে।

এক আসামি গ্রেফতার : এ দিকে কাউন্সিলর সৈয়দ মো: সোহেলকে হত্যার ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। তার নাম সুমন। তিনি শহরের সুজানগর পূর্বপাড়া বৌবাজার এলাকার মৃত কানু মিয়ার ছেলে এবং ওই ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার চার নম্বর আসামি। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। র‌্যাব-১১ কুমিল্লা সিপিসি-২-এর অধিনায়ক মেজর সাবিক হোসেন জানান, মঙ্গলবার রাতে ওই হত্যাকাণ্ডে একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়। সকালে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে র‌্যাব হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে চিকিৎসাধীন সুমনকে গ্রেফতার করে। পরে তাকে পুলিশে হস্তান্তর করা হয়।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।