কাজে ক্রটি পেলে জানাবেন, আমি ব্যবস্থা নেব

109

চুয়াডাঙ্গায় রাস্তা নির্মাণকাজের উদ্বোধনকালে মেয়র জিপু চৌধুরী
নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গায় রাস্তা নির্মাণকাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার বেলা তিনটার দিকে পৌর এলাকার বেলগাছি মুসলিমপাড়ায় এ কাজের উদ্বোধন করেন পৌর মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু। গুরুত্বপূর্ণ নগর উন্নয়ন অবকাঠামো প্রকল্প-২ এর অর্থায়নে চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার আওতায় এ রাস্তার নির্মাণ করা হবে।
রাস্তা নির্মাণকাজের উদ্বোধনকালে মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু বলেন, ‘একটি রাস্তার জন্য এই এলাকার অনেক মানুষ বহুদিন ধরে কষ্ট পাচ্ছিল। মানুষের ভোগান্তির শেষ ছিল না। আমি বিষয়টি অবগত হওয়ার পরই ব্যবস্থা নিয়েছি। যত দ্রুত সম্ভব, চেষ্টা করেছি এ রাস্তাটি করে দেওয়ার জন্য। আজ আপনাদের সেই বহুল কাক্সিক্ষত রাস্তা আমরা করে দিচ্ছি। পৌরসভার মধ্যে থাকা সত্ত্বেও রাস্তাটি কাঁচা ছিল। এখন রাস্তাটি হলে আপনাদের নাগরিক সেবার মান আরও বৃদ্ধি হবে। সাধারণ মানুষ যাতে উন্নত নাগরিক সেবা পায়, সে বিষয়ে আমরা লক্ষ্য রাখছি। চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার উন্নয়নমূলক কাজ অতিদ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। এখন কিছুটা দায়িত্ব আপনাদেরও নিতে হবে। এ কাজ পৌরসভার ঠিকই, তবে তার থেকে বেশি আপনাদের। সেজন্য এই কাজটি কীভাবে হচ্ছে, সেদিকে আপনাদেরই খেয়াল রাখতে হবে। কাজে কোনোরকম ক্রটি পেলে আমাকে গোপনে জানাবেন। আমি কারো নাম প্রকাশ করব না। তবে অবশ্যই ব্যবস্থা নেব। প্রত্যেকেকটি কাজ হতে হবে খুবই ভালো। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কাছে সামান্য মিষ্টিও খাওয়া হয় না যে আমি তাদের বলতে পারব না। আমি চেষ্টা করছি, প্রত্যেকটা এলাকায় জনগণের সেবা বৃদ্ধির জন্য।’
পৌর মেয়র আরও বলেন, লকডাউনের কারণে পৌরসভার বেশ কয়েকটি কাজ কিছুদিন বন্ধ ছিল। বর্তমানে লকডাউন শিথিল করায় কাজ আবার শুরু করছি। সামাজিক ও শারীরিক দূরুত্ব বজায় রেখে আমরা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে কাজ করার নির্দেশনা দিচ্ছি। উন্নয়নমূলক কাজ এগিয়ে যাচ্ছে। চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার মানুষের সেবা দেওয়ার জন্য নিরন্তর ছুটছি। ছুটে যাব। মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু উপস্থিত সবাইকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দিয়ে আরও বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে আতঙ্কিত হওয়া যাবে না। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। মাস্ক এবং হ্যান্ড গ্লাভস পরতে হবে।
রাস্তা উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মনি, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর শেফালি খাতুন, পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান কাওসার, স্থানীয় বাসিন্দা মুনতাজ ফকির, খায়ের, সাইদুল প্রমুখ।