চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কাঁচা ডিম থেকে মারাত্মক ফুড পয়জনিং

সমীকরণ প্রতিবেদন
সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৬ ১২:২৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

1468399896

স্বাস্থ্য ডেস্ক: খবরটা বেশ অদ্ভুত মনে হতে পারে। খবরটা হচ্ছে- ডিম বা কাঁচা অথবা কম সিদ্ধ ডিম থেকে তৈরি খাবারে ফুড পয়জনিং হয়ে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিজবেনে একজন নারী মারা গেছেন এবং অসুস্থ হয়েছেন শতাধিক। কিন্তু এর জন্য রেস্টুরেন্ট বা ক্যাটারিং কোম্পানিকে দায়ী করা হয়নি। এ ব্যাপারে কুইন্সল্যান্ড ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির গবেষক ড. বেলিন্ডা ডেভিস উল্লেখ করেছেন, রেস্টুরেন্টে মেহনিজ, টিরামিসু, মওসি ইত্যাদি খাবারে তৈরির সময় কাঁচা ডিম অথবা সামান্য সিদ্ধ ডিম মিশ্রণ করা হয়; যা অস্ট্রেলিয়ায় সালমোনেলা ব্যাকটেরিয়াজনিত ফুড পয়জনিং-এর অন্যতম কারণ। বিশেষজ্ঞগণ বলছেন, সাম্প্রতিক কয়েকটি ফুড পয়জনিং-এর জন্য ও সালমোনেলা নামক ব্যাকটেরিয়া দায়ী। তাই বিশেষজ্ঞগণ বলছেন, ডিম বা কাঁচা ডিম এখন সালমোনেলাজনিত ফুড পয়জনিং-এর জন্য বেশি দায়ী। শুধু তাই নয়, কম সেদ্ধ মুরগি বা চিকেন থেকেও ফুড পয়জনিং হতে পারে। এ ব্যাপারে ড. ডেভিসের মতে, গর্ভবতী নারী, শিশু, বয়স্ক মানুষ এবং যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাদের ডিম ভালো করে সিদ্ধ করে খাওয়া উচিত। ডিম থেকে ফুড পয়জনিং রোধে ড. ডেভিস কিছু উপদেশ দিয়েছেন। আর তা হচ্ছে, ডিম রান্না বা অমলেট করার আগে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। ডিম ফ্রিজে সংরক্ষণ করতে হবে এবং ময়লাযুক্ত ডিম ভেঙ্গে রান্না করা বা ভাজা যাবে না, এমনকি ডিম বা কাঁচা ডিম ধরার পর ভালো করে হাত জীবাণু নাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। তাহলে ডিম থেকে ব্যাকটেরিয়াল ফুড পয়জনিং রোধ করা সম্ভব।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।