চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ৯ জুলাই ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

করোনা সংকটে মানবিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন বিএনপি নেতা টিপু তরফদার

সমীকরণ প্রতিবেদন
জুলাই ৯, ২০২১ ৩:১২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

প্রতিবেদক, দামুড়হুদা:
মহামারি করোনা ভাইরাসে মানুষের জীবন যখন বিপন্ন, অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছে মানুষ, ঠিক তখনি মানবিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেই চলেছেন বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোখলেছুর রহমান টিপু তরফদার। ২০২০ সালে চুয়াডাঙ্গার জেলার দামুড়হুদা ও জীবননগর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনিই প্রথম ১২ শয্যার হাই ফ্লো অক্সিজেন প্রান্ট স্থাপন করে মানবিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় দামুড়হুদা উপজেলার চিৎলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১২ শয্যার হাই ফ্লো অক্সিজেন প্রান্টে আরও ১০টি শয্যা বাড়িয়ে তা ২২ শয্যায় উন্নতি করলেন। গতকাল ২২ শয্যায় উন্নীতকরণের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোখলেছুর রহমান টিপু তরফদারের পক্ষে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেপ্লক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. ফারহানা ওয়াহিদ তানির হাতে তুলে দেওয়া হয়।
জানা যায়, গত বছর থেকে সারা বিশ্বে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যখন লক্ষ লক্ষ মানুষ মারা যায়। তখনি দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাই ফ্লো অক্সিজেন প্রান্ট স্থাপন করেন অত্র এলাকার কৃতি সন্তান চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি’র অন্যতম নেতা, বিএন্ডটি গ্রুপের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মোখলেছুর রহমান টিপু তরফদার। সে থেকেই করোনায় আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। দ্বিতীয় ঢেউয়ে হঠাৎ করে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় রোগীদের সুচিকিৎসার জন্য তার অর্থায়নে গত বছর স্থাপিত ১২ শয্যার হাই ফ্লো অক্সিজেন প্লান্টকে এবার তিনি ২২ শয্যায় উন্নীতকরণ করে মানবিকতায় অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন।
বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোখলেছুর রহমান টিপু তরফদার বলেন, ‘এই মহামারি যতোদিন থাকবে, করোনা আক্রান্ত রোগীদের সু-চিকিৎসার জন্য তাঁর সাধ্যমতো সহযোগিতা ততদিন অব্যাহত থাকবে। তিনি আরও বলেন, করোনা আক্রান্ত রোগীর জন্য অক্সিজেন খুবই প্রয়োজন। তাই দামুড়হুদা ও জীবননগরবাসীর জন্য গত বছর দুটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেই ১০ শয্যার করে অক্সিজেন প্লান্ট ও বেড স্থাপন করে দিয়েছিলাম। এ বছর হঠাৎ করে করোনা আক্রান্ত রোগী বেড়ে যাওয়ায় সেই ১০ শয্যার সাথে আমার নিজ অর্থায়নে আরও ১০ শয্যা বাড়িয়ে দিলাম। কারণ আমি দামুড়হুদা ও জীবননগরবাসীসহ এ জেলায় করোনা আক্রান্ত কোনো রোগীকে অক্সিজেনের অভাবে মরতে দিতে পারি না। প্রয়োজনে ভবিষ্যতে আরও দেব, ইনশা-আল্লাহ।
উল্লেখ্য, ইঞ্জিনিয়ার মোখলেছুর রহমান টিপু তরফদারের অর্থায়নে স্থাপিত হাই ফ্লো অক্সিজেন প্লান্টের মাধ্যমে একযোগে ২২ জন করোনা আক্রান্ত রোগী চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করতে পারবেন। তিনি এ যাবৎ ২০টি ৯.৮ কিউবিক মিটার তথা প্রতিটি ৯ হাজার ৮০০ লিটার ধারণক্ষমতা সম্পন্ন অক্সিজেন সিলিন্ডারে ১ লাখ ৯৬ হাজার লিটার অক্সিজেন দিয়েছেন।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।