চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ৫ জুলাই ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

করোনা আক্রান্ত হয়ে চুয়াডাঙ্গার প্রখ্যাত আইনজীবী আলমগীর হোসেনের মৃত্যু; ইলিয়াস কাঞ্চনের শোক

সমীকরণ প্রতিবেদন
জুলাই ৫, ২০২১ ৮:৩১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন (৬০)। আজ সোমবার (৫ জুলাই) বেলা পৌনে ৪টার দিকে রাজধানী ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। প্রয়াত আলমগীর হোসেন জেলা জজ আদালতের সাবেক পাবলিক প্রসিকিউটর, স্থানীয় সামাজিক সংগঠন জেলা লোকমোর্চা, নিরাপদ সড়ক চাই এবং কালের কণ্ঠ শুভসংঘ চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সভাপতি ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও তিন ছেলে-মেয়ে, আত্মীয়-স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী ও শুভাকাঙ্খী রেখে গেছেন।
জানা যায়, অ্যাড. আলমগীর হোসেন গত মাসের ১১ তারিখ জ্বরে আক্রান্ত হন। ১৩ তারিখে তাঁর শরীরে করোনা শনাক্ত হলে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি হন তিনি। অবস্থার অবনতি হওয়ায় সেখান থেকে ১৯ তারিখে তাঁকে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ বেলা পৌনে চারটার দিকে তিনি মারা যান এ পরিচিত মুখ।
এদিকে, নিসচা- এর চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন নিরাপদ সড়ক চাই-এর (নিসচা) প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।
চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তালিম হোসেন বলেন, গত জুন মাসের মাঝামাঝি সময়ে অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেনের শরীরে করোনা হলে তাঁকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় পরে তাঁকে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালের আইসিউতে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন তিনি। অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ছাড়াও কালের কণ্ঠ শুভসংঘ, স্থানীয় সামাজিক সংগঠন জেলা লোকমোর্চা ও নিরাপদ সড়ক চাই চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সভাপতি ছিলেন। অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেনের মৃত্যুর খবর পেয়ে বিকেলেই নিরাপদ সড়ক চাই-এর (নিসচা) প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তাঁর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন। তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার (৬ জুলাই) সকাল ১০টায় জানাজা শেষে চুয়াডাঙ্গা জান্নাতুল মাওলা কবরস্থানে তাঁর দাফন কার্য সম্পন্ন করা হবে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।