করোনাভাইরাস : গাংনীতে দুজনের জরিমানা

179

গাংনী অফিস:
গাংনী উপজেলায় করোনার প্রকোপ কমাতে এবং এ সময় কেউ যেন দ্রব্যের কৃত্রিম সংকট বা মূল্য বৃদ্ধি না করতে পারে, এ জন্য উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে পৃথক পৃথকভাবে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে গাংনী উপজেলার বামন্দীতে গাংনী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিলারা রহমান ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে চাল ব্যবসায়ী এনামুল হককে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। একই সঙ্গে মূল্যতালিকা টাঙানোর জন্য নির্দেশ দেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবাইদুর রহমান, বামন্দী ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ও বামন্দী বাজার কমিটির সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আওয়াল। এ ছাড়া লোকসমাগম সৃষ্টির দায়ে সুন্নতে খাতনার অনুষ্ঠান বন্ধ ও জরিমানা করা হয়।
জানা যায়, গতকাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গাংনী বাজারের রিয়াজ উদ্দিন মার্কেটে অভিযান পরিচালনা করে উপজেলা প্রশাসন। ব্যবসায়ীরা যাতে দ্রব্যের কৃত্রিম সংকট বা মূল্য বৃদ্ধি না করেন, সে বিষয়ে তাঁদের হুঁশিয়ারী ও সচেতন করা হয়। পরে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে করোনাভাইরাসের সরকারি নিয়ম লঙ্ঘন করে সুন্নতে খাতনার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে লোকসমাগম সৃষ্টির দায়ে গাংনী পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের লুৎফর রহমানের ছেলে আবুল বাশার (৪০)-এর বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে উপজেলা প্রশাসন। এ সময় অনুষ্ঠান ভণ্ডুল, সাজসজ্জা খুলে ফেলাসহ দণ্ডবিধি ২৬৯ (১৮৬০) ধারা মতে ৫ শ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। বেলা ১টার দিকে গাংনী সিনেমা হলপাড়ায় আরও একটি সুন্নতে খাতনার অনুষ্ঠান বন্ধের জন্য পৌর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পাশে বুদুর বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে উপজেলা প্রশাসন। এ সময় সেখানে যেন লোকসমাগম সৃষ্টি না করা হয়, সেজন্য পরিবারের পক্ষে বুদুর স্ত্রীর নিকট থেকে মুচলেকা নেওয়া হয়। অভিযান পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়ানুর রহমান। এ অভিযানে সহযোগিতা করেন গাংনী থানার পুুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) স্বপনসহ পুলিশ সদস্যরা।