চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

করতোয়া পাড়ে লাশের সারি

নৌকাডুবিতে শিশু-নারীসহ ২৪ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ অর্ধশতাধিক
সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২ ৯:৩৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

সমীকরণ প্রতিবেদন:
পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় করতোয়া নদীতে নৌকাডুবিতে শিশু ও নারীসহ ২৪ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। উপজেলার মাড়েয়া ইউনিয়নের আউলিয়ার ঘাট এলাকায় গতকাল দুপুরে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ৮ শিশু, ১২ নারী ও ৪ পুরুষ রয়েছেন। এখনো নিখোঁজ রয়েছে অর্ধশতাধিক ব্যক্তি। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন উদ্ধারকর্মীরা। গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত পাওয়া খবরে ফায়ারসার্ভিসের তিনটি ইউনিটের কর্মীরা উদ্ধার অভিযান চালিয়েছেন বলে জানা যায়।

পুলিশ, ফায়ারসার্ভিস ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নদীর অপর পাড়ে মহালয়া উপলক্ষে প্রতি বছর বদ্বেশ^রী মন্দিরে ধর্মসভার আয়োজন করা হয়। গতকাল দুপুরের দিকে ওই ধর্মসভায় যোগ দিতে জেলার বোদা ও দেবীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের লোকজন শ্যালো মেশিনচালিতে একটি নৌকাযোগে মন্দিরে যাচ্ছিলেন। বেংহাড়ি মাড়েয়াসহ বিভিন্ন এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীরা বদেশ^রী মন্দিরে পূজার জন্য আসে। পঞ্চগড়ে করতোয়া একটি বড় নদী। আউলিয়ার ঘাটে নদীর একটি গভীর অংশ রয়েছে। অতিরিক্ত যাত্রীর কারণে নদীর মাঝপথে নৌকাটি যাত্রীদের নড়াচড়ার কারণে ডুবে যায়। যাত্রীদের অনেকে সাঁতার জানায় তীরে আসতে পারলেও সাঁতার না জানা বিশেষ করে নারী ও শিশুরা ডুবে যায়। অনেকে নদীর স্রােতে ভাটির দিকে ভেসে যায়। তাদের চিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে এসে অনেককে উদ্ধার করে। পরে জেলা, উপজেলা ও পুলিশ প্রশাসন এবং ফায়ারসার্ভিসকে খবর দেয়া হয়। উদ্ধার হওয়া যাত্রীদের পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতাল ও বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। উদ্ধারকারীরা ২৪ জনের লাশ উদ্ধার করে।

Girl in a jacket

প্রত্যক্ষদর্শী নজরুল ইসলাম জানান, করতোয়া নদীর পাড়ে শিশু ও নারীসহ ১৭ জনের লাশ দেখেছেন। তিনি জানান, গত দু’দিন ধরে পঞ্চগড়ে ভারী বৃষ্টি ও উজান থেকে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। নদীতে বেশি পানি ও নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী বহন করার কারণে এত বেশি হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এ এস এম রাজিউল করিম রাজু উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে শিশু ও নারীসহ সাতজনের লাশ রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোলেমান আলী নৌকাডুবিতে এখন পর্যন্ত ২৪ জনের লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ৭০-৮০ জনের মতো যাত্রী নিয়ে শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নৌকা যাচ্ছিল। লাশ শনাক্ত হলে স্বজনদের হস্তান্তর করা হবে।

এ দিকে জেলা প্রশাসক মো: জহুরুল ইসলাম বলেন, নৌকাটিতে অতিরিক্ত যাত্রী ছিল। তবে ফায়ারসার্ভিসের অভিযান শেষ না হলে প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা জানানো যাচ্ছে না। তাৎক্ষণিকভাবে মৃতদের সৎকারে ২০ হাজার করে এবং আহতদের প্রত্যেককে ১০ হাজার করে টাকা দেয়া হবে বলে জানান তিনি। করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় ৬৩ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। গতকাল রাতে জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোল রুম থেকে এ তথ্য জানানো হয়। এ ছাড়া দুর্ঘটনায় মৃতদের নাম ও পরিচয় জানানো হয়েছে। তাদের বাড়ি পঞ্চগড় জেলার বোদা, দেবীগঞ্জ এবং ঠাকুরগাঁও জেলায়।

কন্ট্রোল রুমের দেয়া তথ্যমতে দুর্ঘটনায় মৃতদের মধ্যে রয়েছেন- পলি রানী (১৪), লক্ষ্মী রানী (২৫), শোভা রানী (২৭), প্রিয়ান্তা রানী (৫), খুকি রানী (৩৫), প্রলিমা রানী (৫৫), তারা রানী (২৪), শোনেকা রানী (৬০), ফাল্গুনি রানী (৫৫), প্রমিলা রানী (৭০), ধনবালা (৪৭), সুমিত্রা রানী (৫৭), সফলতা রানী (৪০), শিমলা রানী (৩৫), উশোষী রানী (২), তনুশ্রী রানী (২), শ্রেয়শী রানী (২), শ্যামলি রানী (৩৫), রূপালী রানী (৩৫), দীপঙ্কর (৫), অমল চন্দ্র (৩৫), নৌকার মাঝি হাসান আলী (৫২), বিমল চন্দ্র (৪৫) ও জোতিষ চন্দ্র (৫৫)।

তদন্ত কমিটি ও তথ্যকেন্দ্র :
করতোয়ায় তীর্থযাত্রীদের নৌকাডুবি তদন্তে কমিটি করেছে জেলা প্রশাসন। এ ছাড়া একটি তথ্যকেন্দ্রও খোলা হয়েছে। জেলা প্রশাসক গতকাল বিকেলে সাংবাদিকদের বলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়ন পরিষদে জরুরি তথ্যকেন্দ্র খোলা হয়েছে। যেকোনো প্রয়োজনে ০১৭০৮-৩৯৭৭১৮ ও ০১৭১৯-৩৪৭১৭৩ এই নম্বরে যোগাযোগ করতে বলেছে জেলা প্রশাসন।

প্রধানমন্ত্রীর শোক :
বাসস জানায়, যুক্তরাষ্ট্রে সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পঞ্চগড়ের করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় প্রাণহানিতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এক শোক বার্তায় সরকারপ্রধান নৌকাডুবির ঘটনায় যারা প্রাণ হারিয়েছে তাদের রূহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।