এ বইমেলা একুশের চেতনাকে আরও বৃদ্ধি করবে

190

চুয়াডাঙ্গায় একুশে বইমেলার উদ্বোধনকালে এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার
নিজস্ব প্রতিবেদক:
মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গায় তিন দিনব্যাপী একুশে বইমেলার উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল চারটায় চুয়াডাঙ্গা জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ মেলার উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার বলেন, বই পড়ার কোনো বিকল্প নেই। জ্ঞান অর্জনের জন্য বই পড়তে হবে। বই পড়লে মানুষ আলোকিত হবে। বই একটি জাতিকে সমৃদ্ধ করে। বাঙালি জাতিকে প্রথম বইয়ের মাধ্যমে বহির্বিশ্বে পরিচিতি ঘটান রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু প্রথম জাতিসংঘে বাংলায় ভাষণ দেন। এ ভাষার মর্যাদা বিশ্বের দরবারে তিনি বাড়িয়ে তোলেন। বই পড়ে দেশের ইতিহাস, অতীত সম্পর্কে জানতে হবে। এ বইমেলা চুয়াডাঙ্গায় একুশের চেতনাকে আরও বৃদ্ধি করবে।
সভাপতির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, মানুষের আলোকিত জীবনের উপকরণ হচ্ছে বই। জগতে শিক্ষার আলো, নীতি-আদর্শ, ইতিহাস-ঐতিহ্য, সব জ্ঞানের প্রতীক বইয়ের মধ্যে নিহিত। একঘেয়ে দুঃখ-কষ্টকে বই পড়তে বসলেই ভুলে থাকা যায়। পৃথিবীতে বিনোদনের কত কিছুই না আবিষ্কৃত হয়েছে, কিন্তু বই পড়ার নির্মল আনন্দের কাছে সেগুলো সমতুল্য হতে পারেনি। শিক্ষা-সাহিত্য-সংস্কৃতিমূলক কোনো মজাদার বইয়ের বিষয়বস্তু বা ঘটনা মানুষ সহজে ভুলে যায় না। তাই জীবনের অবসর সময়গুলো বইয়ের নেশায় ডুবে থাকা দরকার।
চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুন্সি আবু সাঈফের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. কলিমুল্লাহ, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. কামরুজ্জামান, সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আজিজুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিকুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন।