একস্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা : সালিশের আড়ালে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগ : জীবননগর হাসাদহ যুবলীগনেতা জুম্মত মন্ডলের কান্ড! : সংবাদ সংগ্রহকালে সাংবাদিককে মারধর ক্যামেরা ও মোবাইল ছিনতাই : থানায় অভিযোগ দায়ের

626

নিজস্ব প্রতিবেদক: জীবননগর উপজেলার হাসাদহ বাজারে সংবাদ সংগ্রহ করতে যেয়ে হাসাদাহ ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি জুম্মাত আলী মন্ডল কর্তৃক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন স্থানীয় দৈনিক সময়ের সমীকরণ’র প্রতিনিধি ফেরদৌস ওয়াহিদ। গতকাল সন্ধ্যা ৭টার দিকে এই ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার বিবরনে জানা যায়, পার্শ্ববর্তী মহেশপুর উপজেলার একতার গ্রামের আব্দুস শুকুরের মেয়ে স্কুল পড়–য়া ছাত্রী সুমাইয়া খাতুন (১৩) সকাল ৮টার দিকে হাসাদহে প্রাইভেট পড়ার উদ্দেশ্য বাড়ি থেকে বের হয় পথিমধ্যে হাসাদাহ গ্রামের শ্রী লালু খোড়ার ছেলে শ্রী শিমুল (২২) তাকে ধর্ষনের অপচেষ্টা চালায়। উক্ত ঘটনাটি সঠিক বিচারের আশায় ভুক্তভোগীর পরিবার সোমবার বিকালে হাসাদাহ বাজারে গ্রাম্য শালিস আহ্বান করে। উক্ত গ্রাম্য শালিসে হাসাদাহ যুবলীগ সভাপতি ও ইউপি সদস্য জুম্মাত আলী মন্ডল ও তার অনুসারী কিছু আওয়ামী লীগ নেতা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ঘটনাটা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে। ঐ সময়ে ঘটনাস্থলে স্থানীয় সাংবাদিক ফেরদৌস ওয়াহিদ উপস্থিত হলে জুম্মাত আলী মন্ডল ও তার অনুসারীরা সাংবাদিক ফেরদৌস ওয়াহিদকে অকথ্য অশ্লিল ভাষায় গালিগালাজ দিয়ে হাতুড়ি, রডসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার অতর্কিত হামলা চালায় এবং তার কাছে থাকা ডিজিটাল ক্যামেরা, নিজ ব্যবহৃত মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়। উক্ত হামলায় মারাত্মক আহত হন স্থানীয় ঐ সাংবাদিক। হামলার সংবাদ পেয়ে স্থানীয় অন্যান্য সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে পৌছান এবং ঘটনাস্থল থেকে সাংবাদিক ফেরদৌস ওয়াহিদকে উদ্ধার করে দ্রুত জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। উক্ত হামলার পর নির্যাতিত সাংবাদিকের পক্ষ থেকে জীবননগর থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে বলা জানা গেছে। এই দিকে উক্ত হামলার ঘটনার পর প্রতিক্রিয়ায় ঘটনাটি নাক্ক্যারজনক আখ্যা দিয়ে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন জীবননগর প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে জীবননগর প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহিদ বাবু, জীবননগর সাংবাদিক সমিতির সভাপতি এডভোকেট আব্দুর রশিদ, সাধারণ সম্পাদক আতিয়ার রহমান, হাসাদাহ রিপোর্টার্স ক্লাবের পক্ষ থেকে মনিরুজ্জামান রিপন, শামসুল আলম, আলামিন, চ্যানেল এস এর চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রতিনিধি মিঠুন মাহমুদসহ স্থানীয় অন্যন্য সাংবাদিকবৃন্দরা। সাংবাদিকরা তাদের প্রতিক্রিয়ায় বলেন যে, আমরা উক্ত ঘটনায় মর্মাহত। উক্ত ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদেরকে অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানান।