ঈদের দিন দুস্থ, অসচ্ছল ও ছিন্নমূল মানুষদের নিজ হাতে খাওয়ালেন সাহিদুজ্জামান টরিক

357

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ঈদুল ফিতর মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব। উৎসবের এ আনন্দ যেন সমাজের প্রতিটি মানুষ উপভোগ করতে পারে সে দিকে খেয়াল রাখা সবার সামাজিক কর্তব্য। উৎসবের আনন্দকে সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়াটাই রমজান ও ঈদুল ফিতরের মূল তাৎপর্য। ঠিক এমনটিই মনে করেন আলহাজ্ব সাহিদুজ্জামান টরিক। তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলার কৃতি সন্তান, সফল ব্যবসায়ী, সাহিদ গ্রুপের চেয়ারম্যান, সিঙ্গাপুর-বাংলাদেশ সোসাইটি’র উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ চেম্বার অব সিঙ্গাপুরের প্রেসিডেন্ট। প্রায় ঈদই সিঙ্গাপুরে উদ্যাপন করলেও এবার নাড়ির টানে স্বপরিবারে ছুটে এসেছেন প্রিয় জন্মভূমি চুয়াডাঙ্গাতে। বুধবার ঈদের দিন সকাল আটটায় ভি.জে সরকারি উচ্চবিদ্যালয় (চাঁদমারী) মাঠে কেন্দ্রীয় জামাতে পরিবারের ছোট-বড় সদস্যদের নিয়ে নামাজ আদায় শেষে মুরব্বি, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, শুভাকাক্সক্ষী, আত্মীয়-স্বজন, পরিবার-পরিজন ও বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন তিনি। এরপর তিনি পূর্বনির্ধারিত জেলা শিল্পকলা একাডেমির সম্মুখে সাহিদ গার্ডেনে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে অসহায় ও দুস্থদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় এবং মধ্যহ্ন ভোজে অংশ নেন। এ দিন দুপুর একটা থেকে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত চুয়াডাঙ্গার বিভিন্ন এলাকার কয়েক হাজার অসহায় ও দুস্থদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন এবং তাদের মধ্যে নিজ হাতে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করেন। ঈদের দিন ব্যতিক্রম এমন আয়োজনে খুশি সমাজের অসহায়, দুস্থ, অসচ্ছল ও ছিন্নমূল মানুষ। তাদের মধ্যে এ রকম অনেকে ছিল, যাদের সব আছে কিন্তু রান্নার জন্য প্রয়োজনীয় চুলা ও জ্বালানিই নেই। বছরের প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতরের নামাজ শেষে তাদের জন্য দুমুঠো খাবারের নিশ্চয়তা ছিল এ আয়োজনের সার্থকতা, যা ঈদের আনন্দকে অনেকাংশে বাড়িয়ে দেয়।