চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ২০ জানুয়ারি ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

‘ইসি গঠনে আইন সঙ্কট বাড়াবে’

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
জানুয়ারি ২০, ২০২২ ৯:৩৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সার্চ কমিটিকে আইনি পোশাক পরিয়ে নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনের উদ্যোগ সরকারের রাজনৈতিক দুর্বুদ্ধি আর দুরভিসন্ধিমূলক অপকৌশল। রাজনৈতিক মতৈক্য ছাড়া রকিব ও হুদা মার্কা সরকার অনুগত আরেকটি নির্বাচন কমিশন সরকারি দলের রাবার স্ট্যাম্প হিসেবেই ব্যবহৃত হবে। বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ গতকাল বুধবার এক বিবৃতিতে এসব জানিয়ে বলেছেন, ইসি গঠন সংক্রান্ত নতুন আইনের উদ্যোগ রাজনৈতিক দল ও জনগণকে ধোঁকা দেয়ার আরেক কৌশল। রাজনৈতিক দুর্বুদ্ধি আর দুরভিসন্ধিমূলক অপকৌশল থেকেই ক্রিয়াশীল রাজনৈতিক দল ও অংশীজনদের প্রতিনিধিদের সাথে কোনো আলোচনা ও মতৈক্য ছাড়াই সরকারের পছন্দ অনুযায়ী সার্চ কমিটিকে আইনি পোশাক পরিয়ে আগামী ইসি গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সরকার ও সরকারি দলের এই অপকৌশল ইসি ও নির্বাচনকেন্দ্রিক বিদ্যমান সঙ্কটের সমাধান না করে তা আরো ঘণীভূত করবে। সরকার এক দিকে যখন রাষ্ট্রপতিকে দিয়ে অর্থহীন সংলাপের আয়োজন করছে, অন্য দিকে তখন নীলনকশার অংশ হিসেবে সংগোপনে মন্ত্রী পরিষদকে দিয়ে কমিশন গঠনের খসড়া অনুমোদন করিয়ে সংসদে পাস করার পাঁয়তারা করছে।

বামজোট মনে করে, সরকার যে রকিব ও হুদা কমিশনের মতো আরেকটি অনুগত ও মেরুদণ্ডহীন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে চায় তা অত্যন্ত স্পষ্ট। গত দুইটি ইসি সরকারি দলের পক্ষে ন্যক্কারজনক ভূমিকা পালন করতে গিয়ে গোটা নির্বাচনী ব্যবস্থা ধ্বংস করে দেশ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনী ব্যবস্থাটাকেই তুলে দিয়েছে। এই ধরনের আরেকটি ইসি যে সরকারি দলের রাবার স্ট্যাম্প হিসেবে ভূমিকা পালন করবে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। নেতৃবৃন্দ বলেন, সব অভিজ্ঞতা এটা প্রমাণ করছে যে, এই সরকারের পদত্যাগ ও নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ তদারকি সরকার ছাড়া এবং রাজনৈতিক দল ও জনগণের আস্থাভাজন যোগ্য নির্বাচন কমিশন ব্যতিরেকে দেশে এখন ন্যূনতম বিশ্বাসযোগ্য ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের কোনো অবকাশ নেই। বাম নেতৃবৃন্দ সরকারকে দুরভিসন্ধি পরিহার করে মতৈক্যের ভিত্তিতে নতুন ইসি গঠন, সরকারের পদত্যাগ ও নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ তদারকি সরকার গঠনে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান। জোটের পক্ষে বিবৃতিদাতারা হলেনÑ জোটের সমন্বয়ক বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, গণসংহতি আন্দোলনের জোনায়েদ সাকি, বাসদের (মার্কসবাদী) মানস নন্দি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির মোশারেফা মিশু, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) ইকবাল কবির জাহিদ ও সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের সভাপতি হামিদুল হক।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।