ইসলামে সুদ হারাম

429

ধর্ম ডেস্ক: সুদ সমাজ শোষণের অন্যতম হাতিয়ার। সুদ প্রথা ধন-সম্পদকে সমাজের মুষ্টিমেয় পুঁজিপতির হাতে কুক্ষিগত করে দেয়। তাই ইসলামের বিধান অনুসারে সুদ হারাম। মেয়াদি সুদ, চক্রবৃদ্ধি সুদ এবং বাণিজ্যিক সুদ তথা সব ধরনের সুদই ইসলামে নিষিদ্ধ। সুদি কারবারে লিপ্ত ব্যক্তি নিজের ওপর অভিসম্পাতের দ্বারোš§ুক্ত করে দেয় বলে কোরানে উল্লেখ রয়েছে। সুদ সম্পদের উন্নতি ও বরকত নষ্ট, নিঃশেষ করে দেয়। সুদে লিপ্ত ব্যক্তি আল্লাহ তায়ালার সঙ্গে যুদ্ধে লিপ্ত বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘আল্লাহ সুদকে মিটিয়ে দেন এবং সদকাকে বাড়িয়ে দেন।’ কোরানে কারিমে অন্যত্র আরো ইরশাদ হয়েছে, ‘হে মুমিনগণ! তোমরা আল্লাহকে ভয় কর এবং সুদের যা অবশিষ্ট আছে, তা পরিত্যাগ কর, যদি তোমরা মুমিন হও। কিন্তু যদি তোমরা তা না কর, তাহলে আল্লাহ ও তার রাসুলের পক্ষ থেকে যুদ্ধের ঘোষণা নাও, আর যদি তোমরা তওবা কর, তবে তোমাদের মূলধন তোমাদেরই থাকবে। তোমরা অত্যাচার করবে না এবং তোমাদের অত্যাচার করা ঠিক হবে না।’ -সূরা বাকারা