ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ চান না ট্রাম্প

280

বিশ্ব ডেস্ক:
ইরানের সঙ্গে যুদ্ধে জড়াতে চান না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তিন মার্কিন কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন। ওই কর্মকর্তারা রয়টার্সকে বলেছেন, ‘তিনি যুদ্ধে জড়াতে চান না। তিনি তেমন নন।’ ট্রাম্প এ ব্যাপারে তার জাতীয় নিরাপত্তা টিম ও অন্যান্য সহযোগীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। তবে তিনি এটাও স্পষ্ট করেছেন, মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থ রক্ষার জন্য তিনি কাজ করবেন। বিদেশে যুদ্ধ না জড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ট্রাম্প ২০১৬ সালের নির্বাচনী ইশতেহারে। আফগানিস্তান ও ইরাক যুদ্ধকে ব্যয়বহুল হিসেবে তিনি বিবেচনা করেন। ইতোমধ্যে তিনি দেশ দুটি থেকে সেনা প্রত্যাহারও করেছেন। চলতি বছরের প্রথম দিকে তিনি সিরিয়া থেকেও সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেছেন, সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট উয়েলি মাউরেরের সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি আশাবাদী যুক্তরাষ্ট্র ইরানের সঙ্গে কোনো যুদ্ধ জড়াতে যাচ্ছে না। প্রসঙ্গত, কূটনিতক সম্পর্ক না থাকলেও যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে সমঝোতার ব্যাপারে মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা পালন করছে সুইজারল্যান্ড। ওয়াশিংটনে সাংবাদিকরা ইরানের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ানোর বিষয়ে প্রশ্ন করলে ট্রাম্প বলেন, ‘আশা করি না।’ সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে সামরিক উত্তেজনা কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। গত সপ্তাহে আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা রক্ষার নামে মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধজাহাজ ও প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পাঠিয়েছে ওয়াশিংটন। হোয়াইট হাউজের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের মুখপাত্র গ্যারেট মারকুইস বলেছেন, ‘প্রেসিডেন্ট এ ব্যাপারে স্পষ্ট যে যুক্তরাষ্ট্র ইরানের সঙ্গে সামরিক সংঘাতে যেতে চায় না এবং তিনি ইরানের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে আলোচনার জন্য খোলামেলা। তবে ৪০ বছর ধরে ইরান সহিংসতা বন্ধে অক্ষম। আমরা ওই অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ও স্বার্থ রক্ষা করব।’