ইরানের পরমাণু বিজ্ঞানীকে হত্যার কথা স্বীকার করলেন ইসরায়েলি গোয়েন্দা প্রধান

22

বিশ্ব প্রতিবেদন:
ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচিতে একের পর এক হামলা এবং দেশটির শীর্ষ পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসিন ফখরেহ জাদেহকে হত্যার সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করলেন দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের প্রাক্তন প্রধান। ইসরায়েলি টেলিভিশন চ্যানেল ১২ কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বিষয়টি স্বীকার করেছেন। সদ্য প্রাক্তন হওয়া মোসাদ প্রধান ইয়োসি কোহেন সাক্ষাৎকারে পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসিন ফখরেহ জাদেহকে হত্যা এবং ইরানের নাতাঞ্জ পরমাণু কেন্দ্রের ভূগর্ভস্থ সেন্ট্রিফিউজ হলে বিস্ফোরণ ঘটানোর অভিযানের বিশদ তথ্য প্রকাশ করেন। এমনকি ইরানের পরমাণু কর্মসূচির সঙ্গে সম্পৃক্ত রয়েছেন তারা গুপ্তহত্যার শিকার হতে পারেন বলে হুঁশিয়ারি দেন কোহেন। তিনি বলেছেন, ‘বিজ্ঞানীরা যদি তাদের পেশা পরিবর্তন করতে চান এবং আমাদেরকে আর আঘাত না করেন, তাহলে কখনো কখনো আমরা তাদের বের হওয়ার পথ দেখানোর প্রস্তাব দিতে পারি।’ ২০২০ সালের ২৭ নভেম্বর তেহরানের কাছে গাড়ি বহরের মধ্যে মোহসেন ফখরেহ জাদেহকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ইরান এই হামলার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ করে আসছিল। তবে ইসরায়েল এ ঘটনার দায় স্বীকার বা অস্বীকার করেনি। ইরানের বিরুদ্ধে মোসাদের পরিচালিত বেশি কয়েকটি অভিযানের কথা স্বীকার করেন কোহেন। এর মধ্যে রয়েছে ২০১৮ সালে তেহরানের পরমাণু সংশ্লিষ্ট নথির আরকাইভ চুরি। এর পেছনে মোসাদের ২০ জন এজেন্ট কাজ করেছে যারা কেউই ইসরায়েলি ছিল না।