ইবাদত-বন্দেগিতে পালিত হচ্ছে পবিত্র শবে বরাত

ইবাদত-বন্দেগিতে পালিত হচ্ছে শবে বরাত

সমীকরণ প্রতিবেদন:

ইবাদত-বন্দেগিতে পালিত হচ্ছে পবিত্র শবে বরাত। মঙ্গলবার (৭ মার্চ) সন্ধ্যার পর সারাদেশের মসজিদগুলোতে মুসল্লিরা ভিড় জমাতে থাকেন। এ রাতের মহিমা তুলে ধরে ইমাম-খতিবরা মসজিদগুলোতে বয়ান করতে থাকেন।

এ রাতে মৃতদের রুহের মাগফেরাত কামনায় কবরস্থানগুলোতেও সন্ধ্যার পর মানুষের ঢল নেমেছে। এ বরকতময় রাতের উছিলায় মৃত প্রিয়জনের গুনাহ মাফের জন্য আল্লাহর কাছে ফরিয়াদ জানাচ্ছেন তারা। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটে পবিত্র শবে বরাতের ফজিলত ও তাৎপর্য ওয়াজ করেন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ খতিব হাফেজ মাওলানা মুফতী মোহাম্মদ রুহুল আমীন।

রাত ৮টা ৫০ মিনিটে পবিত্র কুরআন ও হাদিসের আলোকে লাইলাতুল বরাতের শিক্ষা ও করণীয় নিয়ে ওয়াজ করেন মহাখালীর গাউছুল আযম জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক আল আযহারী।

রাত সাড়ে ১২টায় নফল ইবাদতের গুরুত্ব ও ফজিলত নিয়ে ওয়াজ করেন রাজধানীর বাদামতলীর শাহজাদা লেন জামে মসজিদের খতিব শায়খুল হাদিস মুফতী নজরুল ইসলাম কাসেমী। রাত সোয়া ৩ টায় তাহাজ্জুদ নামাজের গুরুত্ব ও ফজিলত নিয়ে ওয়াজ করবেন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মুফতী মো. মিজানুর রহমান।

ভোর সাড়ে ৫টায় বায়তুল মোকাররমে আখেরি মুনাজাত অনুষ্ঠিত হবে বলেও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। মধ্য শাবানের এ রাত অনেকই মসজিদ কিংবা বাসায় ইবাদত বন্দেগী করে পার করে দিবেন। কেউ নফল নামাজ পড়ছেন, কেউ আল্লাহর জিকিরে মশগুল। কেউ বা কুরআন তিলাওয়াত করে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের চেষ্টা করছেন। নিজের কৃতকর্মের জন্য অনুতপ্ত ঈমানদার মুসলমান আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইছেন।

এদিকে মুসল্লিদের আনাগোনাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন মসজিদের সামনে ভিক্ষুকদের ভিড় দেখা গেছে।