চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ৩০ জুন ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ইউরোপে আশ্রয় চেয়েছেন ২০ হাজার বাংলাদেশি

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
জুন ৩০, ২০২২ ৮:০৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সমীকরণ প্রতিবেদন: দেশে যুদ্ধ বিগ্রহ নেই। উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে দেশ। তারপরও দেশ ছাড়ার চেষ্টা করছে মানুষ। ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) গত বছর বাংলাদেশি নাগরিকদের কাছ থেকে ২০ হাজার আশ্রয়ের আবেদন পেয়েছে। ইউরোপের আশ্রয় বিষয়ক সংস্থা ইইউএএ গত মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। বাংলাদেশ থেকে ইউরোপে আশ্রয় চাওয়াদের প্রধান গন্তব্য হচ্ছে ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি এবং স্পেন।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- গত ইউরোপীয় ইউনিয়ন মোট ৬ লাখ ৪৮ হাজার আবেদন পেয়েছে। ২০২০ সালের চেয়ে যা এক-তৃতীয়াংশ বেশি। সবচেয়ে বেশি আবেদন করেছের সিরীয় ও আফগানরা। এছাড়া ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধের জন্য ইউরোপে সাময়িক আশ্রয় প্রার্থনা করেছেন ৩০ লাখ ৪০ হাজার মানুষ। ইইউএএ বলছে, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরুর পর মোট ৬০ লাখ মানুষ ইউরোপে অবস্থান নেন, তাদের মধ্যে অনেকে অবশ্য ফিরেও গেছেন। ইইউএএ প্রতিবেদনে বলছে, ১ লাখ ১৭ হাজার সিরীয় ও ১ লাখ ২ হাজার আফগান নাগরিক এ বছর ইউরোপে আশ্রয় চেয়ে আবেদন করেছেন। এরপর যেসব দেশ থেকে বেশি আবেদন পড়েছে সে দেশগুলো হলো ইরাক, পাকিস্তান, তুরস্ক ও বাংলাদেশ। আবেদনকারীদের অর্ধেকের বয়স ১৮ থেকে ৩৪ বছরের মধ্যে। এর ৭০ শতাংশ পুরুষ। প্রতি দশটি আবেদনের মধ্যে প্রায় তিনটি আবেদন অপ্রাপ্তবয়স্কদের কাছ থেকে এসেছে এবং মোট আবেদনের ৪ শতাংশ আবেদন পড়েছে অভিভাবকহীন অপ্রাপ্তবয়স্কদের তরফ থেকে। এসব আবেদনের মধ্যে প্রায় ১ লাখ ৮৫ হাজার মানুষকে এরই মধ্যে আশ্রয় বা সুরক্ষা দিয়েছে ইউরোপ। এছাড়া প্রায় ৭ লাখ ৭০ হাজার আবেদনের বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।