আলমডাঙ্গা মুন্সিগঞ্জে নেশার ঔষধ কেনার সময় এক স্কুলছাত্রকে বাধা দিলো জনতা নেশাগ্রস্থকে উত্তমমাধ্যম : ফার্মেসি মালিককে সর্তকীকরণ

585

আলমডাঙ্গা অফিস: চুয়াডাঙ্গাকে মাদকমুক্ত জেলা ঘোষণায় সর্বস্তরের সূধীজনদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে আলমডাঙ্গা মুন্সিগঞ্জে গতকাল এক মাদক সেবনকারীকে নেশার জন্য ফেন্সিলেক্স সিরাপ ও ঘুমের বড়ি কেনার সময় বাধা দেয় স্থানীয় সচেতন জনতা। জানাযায়, গতকাল বেলা ৩টার সময় জেহালা গ্রামের প্রথম অক্ষর ‘ব’র ছেলে অষ্টম শ্রেণি পড়–য়া প্রথম অক্ষর ‘র’ মুন্সিগঞ্জ বাজার সোনালী ব্যাংকের সামনে রাজ্জাকের সেবা ক্লিনিক ফার্মেসিতে নেশা করার জন্য ফেন্সিলেক্স সিরাপ ও ঘুমের বড়ি কিনতে যায়। এসময় পাশের ২ দোকানদার রহিমা স্টোরের রনি ও ফাতেমা গার্মেন্টেস’র মালিক হেলাল ‘র’এর কাছে জানতে চায় সে এই সিরাপ ও বড়ি দিয়ে কী করবে? ‘র’ তাদের কথায় ঘাবড়ে যায় এবং কোন সদুত্তর দিতে না পারায় তখন তারা বুঝতে পারে নেশার জন্য সে এইগুলো কিনতে এসেছে। এরপর হেলাল ও রনি ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার হিরা লাল, আশাদুল ও নয়নকে খবর দিলে তারা এসে ‘র’কে উত্তম-মাধ্যম দিলে সে স্বীকার করে এটা নেশার জন্য কিনতে এসেছে এবং এও জানায় দির্ঘদিন ধরে এই নেশায় আসক্ত সে। মেম্বার হিরা লাল তখন ফার্মেসির মালিক রাজ্জাককেও বকাঝকাসহ সর্তক করে দেয় এই ছোট কিশোরের হাতে এ ধরনের ঔষধ ভবিষ্যতে বিক্রয় না করতে। বিষয়টি নিয়ে মুন্সিগঞ্জ বাজারে ব্যপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। মাদক প্রতিরোধে প্রেসক্রিপসন ছাড়া কারো কাছে ঔষধ বিক্রয় না করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট প্রয়োজনীয় উদ্দ্যোগ গ্রহণের দাবি করেছে স্থানীয় সচেতনমহল।