চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ১২ আগস্ট ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আলমডাঙ্গায় সিআইজি সদস্যদের মধ্যে গৃহপালিত পশু বিতরণকালে এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার

আর্থসামাজিক উন্নয়নে প্রাণিসম্পদ বিভাগ বিশেষ ভূমিকা রেখে চলেছে
সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
আগস্ট ১২, ২০২২ ৯:৪২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

আলমডাঙ্গা অফিস: আলমডাঙ্গা উপজেলা প্রাণিসম্পদ ও ভেটেরিনারি হাসপাতালের উদ্যোগে ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল-২ টেকনোলজি প্রোগ্রাম ফেজ-২ প্রজেক্টের আওতায় এআইএফ-২ উপ-প্রকল্পের অধীনে সিআইজি সদস্যদের আয়বৃদ্ধিকরণে গৃহপালিত পশু (বকনা, ষাঁড় ও ছাগী) বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা পরিষদের মঞ্চে এ বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, আমাদের দেশে ৮০% মানুষ কৃষি নির্ভর। তাই কৃষকদের বাদ দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। কৃষি বলতে আমরা শুধু কৃষককে বোঝাতে চায়নি, কৃষি, প্রাণিসম্পদ ও মৎস্য তিনে মিলেই আমরা কৃষি বোঝাতে চেয়েছি। দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে প্রাণিসম্পদ বিভাগ বিশেষ ভূমিকা রেখে চলেছে। আজ আমরা প্রাণিসম্পদ বিভাগের কথা বলি, তারা পুষ্টির চাহিদা মেটাচ্ছে। ভারত থেকে গরু আমদানি না করেও আমাদের খামারিরা দেশে গরুর চাহিদা মেটাতে সক্ষম। কোরবানির ঈদে দেখলাম ঢাকাসহ দেশের বেশিরভাগ বাজারগুলো দেশী গরুর চাহিদা বেশি ছিল। এছাড়াও মৎস্যসহ বিভিন্ন খাতে সরকার ভর্তুকি দিয়েছে। গরু খামারিদের সরকার সমবায়ের ভিত্তিতে ১ লক্ষ ৬৬ হাহার টাকা জমা দিলে সরকার তাদের ৪ লক্ষ টাকা প্রায় দিচ্ছে। যা ফেরত দিতে হবে না। যারা এখনও সমিতিভুক্ত হয়ে টাকা জমা দেননি, তাদেরকে বলছি আপনাদের সুযোগ আছে।

তিনি আরও বলেন, এক শ্রেণির বিরোধী দল কোনো কিছু দেখলেই সুযোগ খোঁজে। এই বুঝি সরকার পড়ে গেল। তারা জানে না আওয়ামী লীগের জন্ম সেনা ক্যান্টনমেন্টে হয়নি। আন্দোলন-সংগ্রামের মাঝেই আওয়ামী লীগের জন্ম। ৭৫’র ১৫ আগস্ট কিছু উচ্চভিলাসি সেনা কর্মকর্তা ও নব্য মীর জাফরের দল বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছিল, জাতীয় চার নেতাকে কাপুরুষের মতো জেলে হত্যা করেছিল। বঙ্গবন্ধু কন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিচারের মাধ্যমে ঘাতকদের বিচার করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করেছে। বাকিরা যেখানেই থাকুক, তাদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচার করা হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনিসুজ্জামান লালন, আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রনি আলম নূর, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার সালমান আহমেদ ডন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রেজওয়ানা নাহিদ, আলমডাঙ্গার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইফুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ নূর মোহাম্মদ জকু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দিন পারভেজ, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদুজ্জামান লিটু, আলমডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু মুসা, সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাস্টার, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন ও যুগ্ম সম্পাদক সাইফুর রহমান পিণ্টু। স্বাগত বক্তব্য দেন উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আব্দুল্লাহিল কাফি।

আলমডাঙ্গা কলেজিয়েট স্কুলের উপাধ্যক্ষ শামীম রেজার উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার সোহেল রানা, অতিরিক্ত প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা শরীয়তুল্লাহ, সমাজসেবা অফিসার নাজমুল হোসেন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এনামুল হক, প্রেসক্লাবের সভাপতি খন্দকার শাহ আলম মণ্টু, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার হামিদুল ইসলাম আজম, রিসোর্স ইন্সট্রাক্টর জামাল উদ্দিন, কালিদাসপুর ইউপি চেয়ারম্যান আসাদুল হক মিকা, বেলগাছি অফিস চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান চঞ্চল, সিআইডি সদস্য আবুল ফজল ও সিআইজি সদস্য সাইদুল ইসলাম। আলোচনা সভা শেষে উপজেলার ২১০ জন সিআইজি সদস্যের মধ্যে ৬০টি গরু ও ৩১০টি ছাগল বিতরণ করা হয়।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।