চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আলমডাঙ্গার খর্বকায় রূপা ও মীমকে দেখতে তাদের বাড়িতে গেলেন জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস ও ইউএনও আজাদ জাহান

সমীকরণ প্রতিবেদন
সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৬ ১১:৩৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

14199399_1083845035003811_7014310244391076705_nআলমডাঙ্গা অফিস: গত ৫ সেপ্টেম্বর চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস, সিভিল সার্জন ডা: মু. ছিদ্দিকুর রহমান ও আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজাদ জাহান দেশের সম্ভাব্য ক্ষুদ্র দুই বোন রূপা ও মীমকে দেখতে তাদের গ্রামের বাড়ি আলমডাঙ্গা উপজেলার আঠারখাদা পরিদর্শন করেন। এসময় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তবারক হোসেনসহ গ্রামের গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। জানা যায়, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার আঠারখাদা গ্রামের কৃষক আব্দুর রশীদের দুই মেয়ে রূপা ও মীমকে নিয়ে এলাকায় গল্পের শেষ নেই।  এই ২ বোন যেন অত্র অঞ্চলের আলোচনার বিষয় বস্তুতে পরিণত হয়েছে। যখন ২ বোনের নাম মানুষের মুখে মুখে ঠিক তখন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক গত ৫ সেপ্টেম্বর ক্ষুদ্র মানবী রূপা ও মীমকে তাদের বাড়িতে দেখতে যান। রূপা ও মীমের কর্মকান্ড স্বচক্ষে দেখে জেলার সর্বোচ্চ কর্মকর্তাগণ খুবই মুগ্ধ হয়েছেন। দু’বোন তোতা পাখির মত সর্বক্ষন কিচিরমিচির করে কথা বলে। যুবতী বয়সে পার হলেও আচার-আচরনে তারা একেবারেই শিশু। এই ২ বোন  সারাক্ষন সাজগোজ করে ঘুরতে পছন্দ করে। বাইরের অপরিচিত কাউকে দেখলে তারা ভীষন লজ্জ্বাও পায়। জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস ও ইউএনও আজাদ জাহানকে দেখেও প্রথমে ওরা খুব লজ্জ্বা পেয়েছিল। কিন্তু জেলা প্রশাসক, সিভিল সার্জন ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা কিছুক্ষন তাদের সাথে খোলামেলা আলাপ করার পরই তাদের লজ্জ্বা ভেঙে যায় এবং তারা স্বাভাবিকভাবে অতিথিদের সাথে কথা বলেন। এছাড়াও জেলা প্রশাসক ও নির্বাহী অফিসার উদয়পুর সরকারি প্রথামিক বিদ্যালয় ও পোলতাডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।