আবুল বাশারের নির্বাচনী অফিসে দুর্বৃত্তদের আগুন

328

জীবননগরের কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী
জীবননগর অফিস: জীবননগর উপজেলার কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আবুল বাশারের নির্বাচনী অফিসে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে খয়েরহুদা গ্রামের নির্বাচনী অফিসে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযোগের তীর নৌকা প্রতিকের কর্মী-সমর্থকদের দিকে। নির্বাচনী অফিসে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। সূত্র জানায়, জীবননগর উপজেলার নবগঠিত কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল বাশার উপজেলার খয়েরহুদা গ্রামের ৮নং ওয়ার্ডের একটি নির্বাচনী অফিস রাত ১২টা পর্যন্ত খোলা ছিলো। ওই অফিসে এলাকার নেতাকর্মি ও সমর্থকদের নিয়ে নির্বাচনী মতবিনিময় ও গণসংযোগ শেষে বাড়ি চলে যান নেতৃবৃন্দরা। পরবর্তীতে আনুমানিক রাত ২টার দিকে খয়েরহুদা গ্রামের ৮নং ওয়ার্ডের আনারস প্রতিকের নির্বাচনী অফিসে আগুন লাগিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। এ সময় আগুন দেখে এলাকার সাধারণ মানুষ ছুটে এসে পানি ঢেলে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এমন পরিস্থিতিতে খয়েরহুদা গ্রামবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এবং অনেক লোকজনকে আতঙ্কে ছুটাছুটি করতে থাকে।
এ ঘটনায় কেডিকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল বাশার নৌকা প্রতিকের প্রার্থী খাইরুল বাশার শিপলুর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন, নৌকা প্রতিকের প্রার্থীর নেতাকর্মিগণ প্রতিদিন আমার অফিসের সামনে এসে আমার কর্মি-সমর্থকদের হুমকি ধামকি দিতে থাকে। আমি যাতে নির্বাচন করতে না পারি, সে জন্য আমার অফিসে আগুন জ্বালিয়ে দিয়ে হুমকি দিচ্ছে। তিনি আরও বলেন, আমার নির্বাচনী অফিসের পোস্টার ছেড়া ও আগুন দেওয়ার বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন রির্টানিং অফিসারকে জানিয়েছি। আশা করি তারা এর ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। এ ব্যাপারে খাইরুল বাশার শিপলু জানান, আমার এবং সমর্থক নেতাকর্মিদের বিরুদ্ধে তিনি যে নির্বাচনী অফিসে আগুন ও হুমকি ধামকির বিষয়ে যে সব অভিযোগ তুলেছেন তা সবই মিথ্যা। তারা নিজেরা অফিসে আগুন লাগিয়ে আমাদের নামে মিথ্যা অভিযোগ তুলছে। বাড়তি সুবিধা নেয়ার জন্য আমাদের বিরুদ্ধে এসব মিথ্যা বানোয়াট অভিযোগ তোলা হচ্ছে।
এ ঘটনায় জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেলিম রেজা জানান, খয়েরহুদা গ্রামে কেডিকে ইউনিয়ন নির্বাচনে আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল বাশারের নির্বাচনী অফিসে দুর্বৃত্তরা আগুন দিয়েছে এমন একটি অভিযোগ আমরা পেয়েছি। এ বিষয়ে তদন্ত করা হবে তদন্তের পরে ঘটনার সাথে জড়িত ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এনামুল হক বলেন, খয়েরহুদা গ্রামের নির্বাচনী অফিসে আগুন দেওয়ার ঘটনায় এখ পর্যন্ত কোন অভিযোগ পায়নি। ঘটনার ব্যাপারে অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।