আফগানদের হারালো বাংলাদেশের যুবারা

6

খেলাধুলা প্রতিবেদন:
সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জমে উঠেছে যুবাদের ক্রিকেট লড়াই। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে বাংলাদেশ জয় পেয়েছে ৩ উইকেটে। যদিও মাত্র ১০২ রানের লক্ষ্য তাড়ায় আফগানদের বোলিং তোপে অনেকটাই বেগ পোহাতে হয়েছে তাদের। বয়সভিত্তিক খেলায় সব সময়ই শক্তিশালী আফগানিস্তান। জাতীয় দলের পাশাপাশি তাদের পাইপলাইনেও আছে উঠতি মেধাবী খেলোয়াড়। শক্তিশালী এই আফগানদের অনুর্ধ্ব-১৯ দলের বিরুদ্ধে টানা দুই ম্যাচে জয় পেল বাংলাদেশের যুবারা। প্রথম ম্যাচে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম ১৬ রানের জয়ের পর এবার জয় এলো ৩ উইকেট ব্যবধানে। বা-হাতি স্পিনার নাইম ১৪ রানে ৪ উইকেট নিয়ে একাই ধসিয়ে দিয়েছেন আফগানিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপ। তবে মাত্র ১০২ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে দিয়ে টাইগারদের ছেড়ে কথা বলেনি আফগানরা। বরঞ্চ এই রান করতে গলগর্দম হতে হয়েছে বাংলার যুবাদের। যদিও শেষ পর্যন্ত দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে টাইগাররা। আফগানিস্তান প্রথমে ব্যাট করে ৪২.৩ বলে অল আউট হয় মাত্র ১০১ রানে। ২১ রানে প্রথম উইকেট হারানো আফগানরা ৮৩ রানেই খুইয়ে বসেছিল ৮ উইকেট। ফলে এক সময় একশো পার না হওয়ার শঙ্কা জেগেছিল তাদের ব্যাটিংয়ে। ম্যাচ সেরা বাংলাদেশের নাঈম ১০ ওভারের এক স্পেলে ৪ মেডেন সহ একাই নিয়েছেন চার উইকেট। বাহাতি এই স্পিনারের যাদু গ্যালারিতে বসে দেখেছেন সদ্যই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলে আসা সিলেটের ছেলে নাসুম আহমেদ। টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপ দলে জায়গা পাওয়া নাসুম এদিন ছিলেন বেশ উৎফুল্ল। জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশের ওপেনিং জুটিতে আসে ৩৭ রান। তবে এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট খোয়াতে থাকে বাংলার যুবারা। এক সময় ৮৩ রানেই পড়ে যায় সাত উইকেট। আফগান স্পিনারদের আটোসাটো বোলিংয়ে ম্যাচ খোয়ানোর আশংকাও দেখা যায়। তবে শেষ পর্যন্ত টেল এন্ডারদের দৃঢ়তায় জয়ের বন্দরে পা রাখে টাইগার যুবারা। বাংলাদেশের সাত উইকেটের চারটি নেন আফগানদের ডান হাতি লেগ ব্রেক বোলার ইঝারুল হক নাভিদ। আর তিন উইকেট নেন বাহাতি স্পিনার সাহিদুল্লাহ হাসানি।যুব ক্রিকেটে এই ম্যাচে চার খেলোয়াড়ের অভিষেক করায় আফগানিস্তান। ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচ আগামী মংগলবার একই ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে।