চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ৯ অক্টোবর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আজ মহা অষ্টমী ও কুমারী পূজা শুদ্ধ নারীর রূপ চিন্তা করে তাকে দেবী মনে পূজা করবে ভক্তরা

সমীকরণ প্রতিবেদন
অক্টোবর ৯, ২০১৬ ১২:৩১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

IMAG0584

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ মহা অষ্টমী। শারদীয় দুর্গাপূজার সবচেয়ে আকর্ষণীয় এবং জাঁকজমকপূর্ণ দিন আজ। দেবীর সন্ধ্যাপূজা আর কুমারী পূজার মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করবে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা। কুমারী বালিকার মধ্যে শুদ্ধ নারীর রূপ চিন্তা করে তাকে দেবী মনে পূজা করবে ভক্তরা।  তিথি অনুসারে সকাল সাড়ে ৬ টায় চুয়াডাঙ্গা বড় বাজার সার্ব্বজর্নীন দূর্গা মন্দিরে অনুষ্ঠিত হবে মহা অষ্টমী পূজা। সন্ধি পূজা রাত্রী ১০.৩৭ ও সমাপন ১১.২৫ মিনিটে। সব স্ত্রীলোক ভগবতীর এক স্বরূপ। শুদ্ধাত্মা কুমারীতে ভগবতীর বেশি প্রকাশ। সব নারীতে মাতৃত্বরূপ উপলব্ধি করাই কুমারী পূজার প্রধান লক্ষ্য। হিন্দুশাস্ত্র অনুসারে, সাধারণত ১ থেকে ১৩ বছরের অজাতপুষ্প সুলক্ষণা কুমারীকে পূজায় উল্লেখ রয়েছে। ব্রাহ্মণ অবিবাহিত কন্যা অথবা অন্য গোত্রের অবিবাহিত কন্যাকেও পূজা করার বিধান রয়েছে। বয়সভেদে কুমারীর নাম হয় ভিন্ন। শাস্ত্রমতে এক বছর বয়সে সন্ধ্যা, দুইয়ে সরস্বতী, তিনে ত্রিধামূর্তি, চারে কালিকা, পাঁচে সুভগা, ছয়ে উমা, সাতে মালিনী, আটে কুঞ্জিকা, নয়ে অপরাজিতা, দশে কালসর্ন্ধভা, এগারোয় রুদ্রানী, বারোয় ভৈরবী, তেরোয় মহালক্ষ্মী, চৌদ্দয় পীঠনায়িকা, পনেরোয় ক্ষেত্রজ্ঞ এবং ষোল বছরে আম্বিকা বলা হয়ে থাকে। এদিন নির্বাচিত কুমারীকে স্নান করিয়ে নতুন কাপড় পরিয়ে ঘাটে বসানো হয়। পূজা অর্চনা ও দেবীর পায়ে ভক্তদের অঞ্জলি দানের মধ্য দিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসবের মহাসপ্তমী পালিত হয়েছে। বাঙালি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের পাঁচ দিনব্যাপী সর্ববৃহৎ এ ত্রিনয়নী দেবী দুর্গার পিতৃগৃহে আগমন ও বিদায় উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা জেলায় এবার ৮৭ টি পূজা মন্ডপে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। সকাল থেকে চন্ডীপাঠে মুখরিত থাকবে সব পূজামন্ডপ। মন্ডপে মন্ডপে চলছে উলুধ্বনি, শঙ্খধ্বনি, ধূপের আরতি আর নানা ব্যঞ্জনার উপকরণ সজ্জা, ঢাকঢোল আর কাঁসরঘণ্টার শব্দে মুখরিত চারদিক। এই পূজাকে আনন্দমুখর করে তুলতে বর্ণাঢ্য প্রস্তুতির পাশাপাশি নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। চুয়াডাঙ্গা বড় বাজার সার্Ÿজনীন দূর্গা মন্দির কমিটি সূত্রে জানা যায়, আজ সকাল ৬টা ৩০ মিনিটে এরপর দেবীর কল্পারম্ভ এবং মহাষ্টমী বিহিত পূজা শুরু হবে। সন্ধি পূজা আরম্ভ হবে রাত্রী ১০টা ৩৭ মিনিটে ও সমাপনী ১১টা ২৫ মিনিটে। নানা আচার-অনুষ্ঠান শেষে ভক্তরা প্রথম দফায় দুর্গতিনাশিনী দেবী দূর্গার পায়ে পুষ্পাঞ্জলি প্রদান করেন। এর আগে ত্রিনয়নী দেবী দূর্গার তৃতীয় চক্ষুদান করা হয়। পূজা অঞ্জলি শেষে আয়োজন ছিল প্রসাদ বিতরণ ও ভোগ আরতি। এ বছর চুয়াডাঙ্গা জেলায় ৮৭টি মন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় ২৫টি, দামড়–হুদা উপজেলায় ১৮টি, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ২৬টি ও জীবননগর উপজেলায় ১৮টি।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।