আকবরের পাশে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের প্রাক্তন ছাত্ররা

236

মেহেরাব্বিন সানভী:
চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজে একসময়ের জনপ্রিয় চায়ের দোকান ‘আকবরের চা’। আজ তা আর পাওয়া যাবে না। চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের পুরোনো ছাত্রদের কলেজজীবনের কতই না ঘটনা, স্মৃতি আছে আকবরের দোকানে। আকবরের চায়ের দোকান না থাকলেও আছে আকবর। তবে আর আগের মতো পরিস্থিতি নেই আকবরের। ধীরে ধীরে বার্ধক্য আর অসুস্থতায় পড়ছেন তিনি। চোখ দুটোতেও আছে একটু সমস্যা। এক হাত ঠিকমতো নড়াতে পারেন না। তবে তাঁর দুঃসময়ে ভুলে যাননি চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সেই সময়ে তাঁর দোকানে বসা প্রাক্তন কয়েকজন ছাত্র। বর্তমানে তাঁরা একেকজন একেক জায়গায় নানা পেশায় জড়িত। অনেকেই পৌঁছেছেন বার্ধক্যে। তবে হয়ত স্মৃতির পাতায় বারবার মনে পড়ে আকবর আর তাঁর চায়ের দোকানকে। তাই তো সবাই ছুটে এসেছেন আকবরের পাশে।
গতকাল শুক্রবার বিকেল পাঁচটায় চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ‘প্রিয় আকবরের পাশে আমরা’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের প্রাক্তন ছাত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান জোয়ার্দ্দারের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক আব্দুল মুহিত, বীর মুক্তিযোদ্ধা আশু বাঙালী ও চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাজিব হাসান কচি। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন চুয়াডাঙ্গা সাহিত্য পরিষদের সাবেক সভাপতি তৌহিদ হোসেন।
এ সময় চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের একাধিক প্রাক্তন ছাত্রকে দেখা যায় পুরোনো স্মৃতিতে আপ্লুত হয়ে বক্তব্য দিতে। তাঁদের কথায় ভেসে আসে আকবরের দোকানের নানা স্মৃতি। সভায় আকবরের দুঃসময়ে তাঁর পাশে থেকে সহযোগিতা করার বিষয়ে আলোচনা হয়। আলোচনায় আকবরের বাড়ির পাশে রাস্তার ধারে একটা মুদি দোকান দিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সেই সময়ে তাঁর দোকানে বসা প্রাক্তন ছাত্ররা।