চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ২৩ ডিসেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আইসিসি’র বর্ষসেরা উদীয়মান ক্রিকেটার মোস্তাফিজুর রহমান

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ২৩, ২০১৬ ২:৫২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

Musta

সমীকরণ ডেস্ক: আরেকটি ইতিহাস গড়লেন মোস্তাফিজুর রহমান। বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) বর্ষসেরা কোনো পুরস্কারের জন্য মনোনীত হলেন তিনি। নির্বাচিত হয়েছেন ২০১৬ সালের সেরা উদীয়মান ক্রিকেটার। এছাড়া ভারতের স্পিন-অলরাউন্ডার রবিচন্দ্রন অশ্বিন বর্ষসেরা ক্রিকেটার ও বর্ষসেরা টেস্ট ক্রিকেটার পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন। আইসিসি এবারও ১০ ক্যাটাগরিতে বর্ষসেরা ক্রিকেটারদের নাম প্রকাশ করেছে। ২০০৪ সাল থেকে এই পুরস্কার চলে আসছে। একই সঙ্গে বর্ষসেরা টেস্ট ও ওয়ানডে একাদশ ঘোষণা করে আইসিসি। বাংলাদেশের দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে গত বছর বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশে জায়গা করে নেন মোস্তাফিজ। এর আগে বাংলাদেশের একমাত্র সাকিব আল হাসান আইসিসি’র বর্ষসেরা একাদশে নিজের নাম দেখেছেন। ২০০৯ সালে বর্ষসেরা টেস্ট দলে ছিলেন সাকিব। তবে তিনি কখনো আইসিসি’র বর্ষসেরা কোনো পুরস্কার পাননি। কিন্তু ‘দ্য ফিজ’ ও ‘কাটার মাস্টার’খ্যাত মোস্তাফিজ এবার সেই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হলেন। মোস্তাফিজের টেস্ট অভিষেক হয় ২০১৫ সালের জুলাইয়ে। ২০১৬ সালে কোনো ওয়ানডে ও টেস্ট খেলেননি তিনি। তবে টি-টোয়েন্টি খেলেছেন ৭টি। বর্ষসেরা পুরস্কারের জন্য নৈপুণ্য বিবেচনা করা হয়েছে গত বছর ১৪ই সেপ্টেম্বর থেকে চলতি বছর ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। এই সময়ে মোস্তাফিজ দেশের হয়ে ৩ ওয়ানডেতে ৮ উইকেট নিয়েছেন। আর ১০ টি-টোয়েন্টিতে নেন ১৯ উইকেট। এ সময়ে তিনি কোনো টেস্ট খেলেননি। ক্যারিয়ারে ২ টেস্টে তার উইকটে ৪। আর ৯ ওয়ানডেতে ২৬ ও ১৩ টি-টোয়েন্টিতে নিয়েছেন ২২ উইকেট। এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হওয়ার পর আইসিসিকে মোস্তাফিজ বলেন, ‘এ বছর আমার সবচেয়ে বড় পুরস্কার এটি। এই পুরস্কার সামনের বছরগুলোতে আমাকে আরো ভালো করার প্রেরণা জুগাবে। এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়ে আমি খুশি ও গর্বিত। বিশেষ করে বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আইসিসি’র বর্ষসেরা কোনো পুরস্কার জিততে পেরে বেশি খুশি।’
অন্যদিকে ২০১৬ সালে আইসিসি’র বর্ষসেরা ক্রিকেটার ও বর্ষসেরা টেস্ট খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন ভারতের স্পিন-অলরাউন্ডার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। শচীন টেন্ডুলকার ও রাহুল দ্রাবিড়ের পর ভারতের তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে বর্ষসেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার পেলেন তিনি। এই নিয়ে সর্বশেষ পাঁচ বছর একই খেলোয়াড় বর্ষসেরা ও বর্ষসেরা টেস্ট খেলোয়াড় নির্বাচিত হলেন। এর আগে ২০১২ থেকে চার বছর বর্ষসেরা ও বর্ষসেরা টেস্ট খেলোয়াড়ের পুরস্কার জেতেন যথাক্রমে শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারা (২০১২), অস্ট্রেলিয়ার মাইকেল ক্লার্ক (২০১৩), অস্ট্রেলিয়ার মিচেল জনসন (২০১৪) ও অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন স্মিথ (২০১৪)। এছাড়া এই দুই পুরস্কার একসঙ্গে জেতেন রাহুল দ্রাবিড় (২০০৪) ও রিকি পন্টিং (২০০৬)। ২০০৪ সালে ভারতের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে বর্ষসেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জেতেন সাবেক ব্যাটসম্যান রাহুল দ্রাবিড়। আর শচীন টেন্ডুলকার বর্ষসেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জেতেন ২০১০ সালে।
এছাড়া ২০১৬ বর্ষসেরা ওয়ানডে খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যান কুইন্টন ডি কক। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক কার্লোস ব্রেথওয়েট বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি পারফর্মার পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন। বছরের শুরুতে কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০ বলে ৩৪ রানের দুর্র্ধষ ইনিংস খেলেন তিনি। তার ওই অবিশ্বাস্য ইনিংসে শিরোপা জেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২০১৬ সালের সেরা টি-টোয়েন্টি ইনিংস ঘোষণা করা হয়েছে সেটিকে। আর আইসিসি’র সহযোগী দেশগুলোর মধ্যে বর্ষসেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন আফগানিস্তানের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ শাহজাদ। সহযোগী দেশগুলোর মধ্যে ২০১৬ সালে ১৬ ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ ৬৯৯ রান করেছেন শাহজাদ। আইসিসি ইন্টারন্যাশনাল কাপে প্রথম শ্রেণির ম্যাচে তিনি খেলেন ৩০১ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। এছাড়া এ বছর তিনি ১৭ টি-টোয়েন্টিতে করেছেন ৫৩৩ রান। আফগানিস্তানের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে আইসিসি’র বর্ষসেরা কোনো পুরস্কারের জন্য মনোনীত হলেন মোহাম্মদ শাহজাদ।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।