চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ৫ ডিসেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থতি স্বাভাবিক রাখতে বিভিন্ন মামলার পলাতক আসামী ধরতে পুলিশের দিনব্যাপি বিশেষ অভিযান চুয়াডাঙ্গায় ১৪৫ আলমডাঙ্গায় ২৮ মেহেরপুরে ৪১ গাংনীতে ১১ আসামী গ্রেফতার

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ৫, ২০১৬ ১২:৩৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

index

নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গায় পুলিশের বিশেষ অভিযানে ১৪৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১লা ডিসেম্বর থেকে ৭ দিনব্যাপী বিশেষ অভিযানে গতকাল সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত জেলার ১৪৫ জন আসামীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ সময়ে ফেন্সিডিল, গাঁজা, হেরোইন, ইয়াবা, প্যাথেডিন, মদ, শাড়ী ও মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়।     পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ১লা ডিসেম্বর থেকে চুয়াডাঙ্গায় পুলিশের বিশেষ অভিযান শুরু হয়েছে। অভিযানে গত শনিবার সকাল ৬টা থেকে রোববার সকাল ৬টা পর্যন্ত ২ জন সাজাপ্রাপ্তসহ ৪৩ জন আসামীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এসময় ৬৫ পিচ ইয়াবা, ৬১ পুরিয়া গাঁজা, ২৯ পুরিয়া হেরোইন, ৩শ পিচ ভারতীয় শাড়ী ও একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। এছাড়া গতকাল রোববার সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ২২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় তাদের কাছে থেকে ১০ পিচ ইয়াবা, ৩৭ পুরিয়া গাঁজা, চার অ্যাম্পুল প্যাথেডিন ইনজেকশন উদ্ধার করা হয়। ৭ দিনব্যাপী পুলিশের বিশেষ অভিযানের ১ম দিন থেকে ৪র্থ দিন পর্যন্ত মোট ১৪৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় ১২০ বোতল ফেন্সিডিল, ১১৫ পিস ইয়াবা, আট অ্যাম্পুল প্যাথেডিন ইনজেকশন, ৮৯ পুরিয়া হেরোইন, ১৩৬ পুরিয়া গাঁজা, পাঁচ লিটার চোলাই মদ, ৩শ পিস ভারতীয় শাড়ি ও তিনটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়।
চুয়াডাঙ্গার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন জানান, ১লা ডিসেম্বর থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলায় বিশেষ অভিযান শুরু হয়েছে। জেলার বিভিন্ন স্থানে ইতোমধ্যে অভিযান চালিয়ে প্রায় দেড়শ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশের ৭ দিনব্যাপী বিশেষ অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
আলমডাঙ্গা অফিস জানিয়েছে, আলমডাঙ্গা থানার বিশেষ অভিযান পরিচালনা কালে পৃথক পৃথক এলাকা থেকে বিভিন্ন মামলার ২৮জন আসামিকে গ্রেফতার করে। জানাযায়, আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ আকরাম হোসেন ও সকল এসআই, এএসআই বিভিন্ন ক্যম্প ইনচার্জ সম্মিলিতভাবে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে অভিজান চালিয়ে রেজাউল, সোহেল, মিরাজুল, সুমন, সবুর নেছা, মামুন, শাহীন, শুকুর আলী, আমিরুল, মইন উদ্দিন, তমিজ উদ্দিন, আজম আলী, তামিজ উদ্দিন, সেলিম, জহুরুল, রফুল, ফিরোজ, আকরাম সম্পাদক খাতুনসহ ২১জনকে আটক করে। গতকাল সকালেই তাদের চুয়াডাঙ্গা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়াও এসআই সাজ্জাদ, এএসআই হুমায়ুন, এসআই কামরুজ্জামান, এএসআই আল-আমীন, এএসআই ফসিয়ার ও সঙ্গীয় ফোর্সসহ বিশেষ অভিযান চালিয়ে বেলগাছি গ্রামের আমিন উদ্দিনের ছেলে জহুরুল ইসলাম, গোবিন্দপুর গ্রামের কুবারক আলীর ছেলে শুভ, বিনোদপুর গ্রামের মৃত দাউদ মোল্লার ছেলে মোলাম, বেলগাছি গ্রামের নিয়াদ আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর, রায়লক্ষীপুর গ্রামের মৃত হাফিজ উদ্দিনের ছেলে মনিরুল ইসলাম, গোবিন্দপুর গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে রফিকুল ইসলাম, কোর্টপাড়ার বাদলের ছেলে বাপ্পাকে আটক করে। আজ এদের সংশ্লিষ্ট মামলায় চুয়াডাঙ্গা জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।
মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, ৩য় দিনে গ্রেপ্তারী পরোয়ানাসহ বিভিন্ন মামলার আরো ৪১আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে সদর থানা ৭, গাংনী থানা ১৩, মুজিবনগর থানা ৩ এবং গোয়েন্দা পুলিশ ১৮জনকে গ্রেপ্তার করেছে। এনিয়ে বিশেষ অভিযানে গত তিন দিনে বিভিন্ন মামলায় ৯৭ জনকে গ্রেপ্তার করলো পুলিশ। শনিবার দিবাগত রাতে পুলিশ সুপার আনিছুর রহমানের নেতৃত্বে সদর, গাংনী, মুজিবনগর থানা ও জেলা গোয়েন্দ পুলিশের একাধিক দল জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেপ্তার করেন। মেহেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহিদ মাহমুদ বলেন, বিশেষ অভিযানের ৩য় দিনে আটক ৪১আসামী আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
গাংনী অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুরের গাংনী থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে বিভিন্ন অপরাধে ১১জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যা রাত থেকে শুরু করে রোববার ভোর পযন্ত অভিযান চালিয়ে  উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়। গ্রেফতার কৃতদের মধ্যে জিআর, মাদক, চুরি, ডাকাতি মামলাসহ বিভিন্ন অপরাধের মামলার আসামী রয়েছে। গ্রেফতার কৃতরা হচ্ছেন, গাংনী উপজেলার বেতবাড়িয়া গ্রামের খেদু বক্সের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক, রবকুলের ছেলে নাসির উদ্দীন, মজির উদ্দীনের ছেলে আবুল কালাম, হোগলবাড়িয়া গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে ইন্তাজুল ইসলাম, আব্দুল গনির ছেলে আবিরুল ইসলাম, আকুবপুর গ্রামের মৃত গফুরের ছেলে সাবেন আলী, খেজমতের ছেলে জনি, ইকুরী গ্রামের মৃত রহিম বক্সের ছেলে জিল্লুর রহমান, কুষ্টিয়া জেলার মীরপুর উপজেলার পূর্ব গোবিন্দপুর গ্রামের নায়েব আলীর ছেলে হাসান আলী, নজরুল ইসলামের ছেলে জসিম উদ্দীন, কুষ্টিয়া সদরের হাফিজুরের ছেলে বাবু। বিশেষ অভিযানে মেহেরপুর পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান, সহকারী পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান ও গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আনোয়ার হোসেন অংশ গ্রহণ করে। বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার কৃতদের আদালতে প্রেরণের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান, গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আনোয়ার হোসেন

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।