অসতর্কতা, বিষাক্ত কেমিক্যাল পানে শিশু অসুস্থ

14

নিজস্ব প্রতিবেদক:
দামুড়হুদায় পরিবারের অসতর্কতায় ‘টাইগার’ (কোমল পানিয়) ভেবে বৈশাখী আক্তার (৯) নামের এক শিশু বিষাক্ত কেমিক্যাল পান করে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলার দলকা লক্ষীপুর গ্রামে এ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিষাক্ত কেমিক্যাল পান করে বৈশাখী গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। ওই শিশু দামুড়হুদা উপজেলার জুড়ানপুর ইউনিয়নের দলকালক্ষীপুর গ্রামের মোল্লাপাড়ার লিখন হোসেনের মেয়ে ও লক্ষীপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী।
জানা যায়, গতকাল সকালে বৈশাখীর পিতা লিখন হোসেন কলা পাকানোর জন্য একটি ‘টাইগারের’ (কোমল পানীয়) বোতলে বিষাক্ত কেমিক্যাল এনে বাড়িতে রাখেন। শিশু বৈশাখী টাইগার ভেবে বোতলে রাখা কেমিক্যাল পান করে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি বুঝতে পেরে বৈশাখীকে দ্রুত উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়। এসময় জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে তাৎক্ষণিক চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি করেন।
জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সোহবার হোসেন বলেন, ‘পরিবারের সদস্যরা শিশুটিকে জরুরি বিভাগে নিয়ে আসে। তাঁদের থেকে জানতে পারি শিশুটি কলা পাকানোর কাজে ব্যবহৃত এক ধরণের কেমিক্যাল পান করেছে। জরুরি বিভাগ থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে শিশুটিকে হাসপাতালের ওয়ার্ডে অবজারভেশনে রাখা হয়েছে।’ শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বৈশাখী চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিল।