৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কিস্তি চাওয়া যাবে না

47

করোনার প্রভাবে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে নেতিবাচক পরিস্থিতি মোকাবিলায়
নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনাভাইরাসের প্রভাবে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে নেতিবাচক পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ক্ষুদ্র ঋণের কিস্তি পরিশোধে বাধ্য করা বা চাপ দেওয়া যাবে না এবং ওই সময় পর্যন্ত কোনো ঋণ বা ঋণের কিস্তিকে বকেয়া বা খেলাপি করা যাবে না। একই সঙ্গে ক্ষুদ্র ঋণের গ্রাহকদেরকে ঋণের এ বিষয়ে মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অর্থরিটি (এমআরএ) থেকে জারিকৃত সার্কুলারসহ নির্দেশনা দিয়েছে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসন। গতকাল সোমবার চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ ইয়াহ্ ইয়া খান স্বাক্ষরিত এ চিঠি পাঠানো হয় চুয়াডাঙ্গার সব এনজিও নির্বাহী পরিচালক/ব্যবস্থাপকদের নিকট। চিঠিতে বলা হয়, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ক্ষুদ্র ঋণের কিস্তি পরিশোধে বাধ্য করা বা চাপ দেওয়া যাবে না এবং ওই সময় পর্যন্ত কোনো ঋণ বা ঋণের কিস্তিকে বকেয়া বা খেলাপি করা যাবে না। একই সঙ্গে ক্ষুদ্র ঋণের গ্রাহকদেরকে ঋণের এ বিষয়ে মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অর্থরিটি (এমআরএ) থেকে জারিকৃত সার্কুলার নির্দেশনা মেনে ঋণ কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। কিছু কিছু ঋণ গ্রহীতাদের কাছে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে, ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠান উক্ত নির্দেশনা মানছে না। যদি এ নির্দেশনার ব্যত্যয় হয়, তাহলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।