২৪ দিন পর জানা গেলো ‘তিনি’ কারাগারে

146

ঝিনাইদহ অফিস:
২৪ দিন পর হদিস মিলেছে ঝিনাইদহ সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মুশতাক আহম্মেদের। ৯ দিনের নৈমিত্তিক ছুটি নিয়ে গত ৭ এপ্রিল থেকে নিখোঁজ হন মুশতাক। এরপর থেকে তার কোন সন্ধান ছিল না। অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা ছিলেন দুশ্চিন্তায়। অবশেষে জানা গেল দুর্নীতির মামলায় শিক্ষা অফিসার মুশতাক আহমেদ ঢাকার একটি কারাগারে আছেন। তবে অফিসিয়ালি ও পারিবারিক ভাবে বিষয়টি গোপন করে রাখা হচ্ছে চিকিৎসা ছুটির কথা বলে।
জানা গেছে, ৭ এপ্রিল মুশতাক আহমেদ নৈমিত্তিক আর ১৬ তারিখে চিকিৎসার জন্য ছুটি চেয়ে আবেদন করেন। গত ৮ এপ্রিল হতে তিনি কার্যালয়ে অনুপস্থিত আছেন। ৯ দিনের ছুটি শেষে ১৭ এপ্রিল থেকে তার কার্যালয়ে যোগদান করার কথা, কিন্তু তিনি যোগদান না করে ১৬ এপ্রিল চিকিৎসার জন্য তিন সপ্তাহের ছুটি চেয়ে আরেকটি আবেদন পাঠান। যে আবেদনে তার নাম থাকলেও স্বাক্ষর বা সীল দেওয়া নেই। এরপর থেকে তার মুঠোফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়। এতে সংশ্লিষ্ঠ অফিসের অন্যরা বিচলিত হয়ে পড়েন। তারা খোজাখুজি করে কোথায় চিকিৎসাধীন সেটাও উদ্ধার করতে পারেননি। এই অবস্থায় কেটে গেছে প্রায় তিন সপ্তাহ। এদিকে খোজ নিয়ে জানা গেছে, শিক্ষা কর্মকর্তা মুশতাক আহমেদ দুর্নীতির একটি মামলায় হাজিরা দিতে গিয়ে আদালত কর্তৃক আটকের পর কারাগারে আছেন। আদালতের একটি সুত্র জানিয়েছেন, গত ১৫ এপ্রিল ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের দায়রা মামলা নং ৯/১৯ ও ১০/১৯ দুইটি মামলায় তিনি হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে বিচারক এ.কেএম ইমরুল কায়েস তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সেই থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন। আর মামলা দুইটি বিশেষ জজ আদালত-৪ এর আদালতে বিচারাধীন রয়েছেন।