১৭ দিন পর শুরু এলপিএল, অথচ দলই তৈরি হয়নি এখনও

30

খেলাধুলা ডেস্ক:
আইপিএল শুরু হতে আর খুব বেশি দিন বাকি নেই। সব মিলিয়ে আর মাত্র ৩৮ দিন। এরই মধ্যে হঠাৎ আলোচনায় এলপিএল। হুট করে কেউ হেডিং দেখলে ভুল করে আইপিএল’ই পড়া শুরু করবে। যাই হোক, এলপিএল মানে হলো লঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ। আইপিএলের আদলেই ফ্রাঞ্চাইজি লিগ আয়োজন করার সব প্রস্তুতিই সম্পন্ন করে এনেছে তারা। শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের (এসএলসি) সহ-সভাপতি রবিন বিক্রমারত্নে জানিয়ে দিয়েছেন, তারা আশা করছেন ২৮ আগস্ট শুরু করতে পারবেন এলপিএল। যা চলবে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। আইপিএল শুরুর একদিন পর পর্যন্ত।
রবিন বিক্রমারত্নে জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসের মহামারি চলার কারণেই বিলম্ব হলো। না হয়, আরো আগেই এলপিএল মাঠে গড়াতো। করোনার কারণে, তারিখটা ২৮ আগস্ট নিয়ে যেতে হয়েছে। কিন্তু শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে একটা ফ্রাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট আয়োজনের ঘোষণা এবং প্রস্তুতির কথা বলা হলেও, আসলে তারা কতটুকু প্রস্তুত? তাদের ঘোষিত সময় অনুসারে হাতে বাকি আছে আর মাত্র ১৭টি দিন। অথচ, এখনও শ্রীলঙ্কান সরকারের স্বাস্থ্য দপ্তরের অনুমতিই মেলেনি। শুধু তাই নয়, ক্রিকইনফো রিপোর্ট করেছে, শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড এখনও একজন আয়োজক খুঁজছে টুর্নামেন্টটি আয়োজন করার জন্য। যদিও এরই মধ্যে তারা দুবাই ভিত্তিক কোম্পানি প্রোডাকশন গ্রুপের (আইপিজি) সঙ্গে ৫ বছরের চুক্তি করেছে। যারা এর আগে পিএসএলের সঙ্গেও যুক্ত ছিল। আইপিজির সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী এখন খোঁজা হচ্ছে ৫টি প্রস্তাবিত ফ্রাঞ্চাইজি। ১৭দিন পর টুর্নামেন্ট শুরু হবে, অথচ এখনও ফ্রাঞ্চাইজি খুজছে এলপিএল। সঙ্গে প্রতিটি দলের জন্য খোঁজা হচ্ছে নিশ্চিত কোনো স্পন্সর। আরও অবাক করা তথ্য হলো, এখনও প্লেয়ার ড্রাফটই অনুষ্ঠিত হয়নি। এসএলসির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, ৭০জন বিদেশি ক্রিকেটার এই লিগে খেলার জন্য দারুণ আগ্রহ প্রকাশ করেছে। কিন্তু এই ৭০ জনের মধ্যে কাকে কাকে ফ্রাঞ্চাইজিরা দলে টানছে এবং এই করোনার মধ্যে তাদের শ্রীলঙ্কায় আসার প্রটোকলই বা কি হবে, তা কিন্তু নির্ধারণ হয়নি। ক্রিকইনফোকে বিক্রমাসিংহে বলেন, ‘আমরা ২৮ আগস্ট এলপিএল শুরু করার জন্য প্রস্তুত। কিন্তু এখানে কিছু বিষয় আছে। যেগুলো নিয়ে আমাদের কাজ করতে হবে। তার আগে আমাদের স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে টুর্নামেন্ট আয়োজনের অনুমতি মেলেনি, সেটা মিলতে হবে।’
এসএলসি জানিয়েছে, যে ৫টি ফ্রাঞ্চাইজি খেলবে এই লিগে, সেই ৫টি দল প্রতিনিধিত্ব করবে কলম্বো, কেন্ডি, গল, ডাম্বুলা এবং জাফনা। মোট চারটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ২৩ ম্যাচের এই লিগটি। স্টেডিয়ামগুলো হচ্ছে কলম্বোর আর প্রেমাদাসা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়াম, রানগিরি ডাম্বুলা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়াম, পাল্লেকেলে ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়াম এবং সুরিয়াওয়েয়া মাহিন্দা রাজাপাকষে ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়াম।