১৫ দিন পর পর এ আসর বসবে, এক মাস পর সংকলন বের হবে

171

চুয়াডাঙ্গায় কবিতা পাঠের আসরে জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস
নিজস্ব প্রতিবেদক:
‘কবিতায় নতুন চুয়াডাঙ্গা গড়ি’ এ স্লোগানে চুয়াডাঙ্গা ডিসি সাহিত্য মঞ্চে কবিতা পাঠের আসর অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরের ডিসি সাহিত্য মঞ্চে এ কবিতা পাঠের আসর অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসন কবিতা পাঠের এ আসরের আয়োজন করে। আধুনিক বাংলা সাহিত্যের রূপকার মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৪৫তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সাহিত্য পাঠের এ আসর তাঁর নামে উৎসর্গ করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কবিতা পাঠের আসরে অর্ধশতাধিক কবি নিজের লেখা কবিতা আবৃত্তি করেন। চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুন্সী মো. আবু সাইফের সঞ্চালনায় কবিতা পাঠের আসরে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) শারমিন সুলতানা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মনিরা পরভীন, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সিদ্দিকুর রহমান, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপপরিচালক দীপক কুমার সাহা, অধ্যাপক (অব.) এম এ মুহিত, চুয়াডাঙ্গা সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক ড. আব্দুর রশিদ, অ্যাড. বজলুর রহমান, তৌহিদ হোসেন, মো. আলাউদ্দিন, ছড়াকার আহাদ আলী মোল্লা ও শাহ আলম সনি উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে এনডিসি সিব্বির আহমেদ ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খাইরুল ইসলামও উপস্থিত ছিলেন।
কবিতা পাঠের আসরে ছড়াকার আহাদ আলী মোল্লা, নজমুল হেলাল, অমিতাভ মীর, আঁখি তারা, হামিদুল আজম, শরীফ সাথী, চিত্তরঞ্জন সাহা, গোলাম কবীর মুকুল, ওমর আলীসহ অর্ধশতাধিক কবি তাঁদের লেখা কবিতা পাঠ করে শোনান। রম্য রচনা শোনান শাহ আলম সনি।
কবিতা পাঠের আসরে জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস বলেন, ‘কবিতা পাঠের আসরে কোটেশন দিয়েছি, ‘‘কবিতায় নতুন চুয়াডাঙ্গা গড়ি’’। কবিতায় বিপ্লব ঘটিয়েছে, আমি বিশ্বাস করি। তাঁরা তাঁদের লেখনির মাধ্যমে কবিতা ও সাহিত্যের বিপ্লব ঘটিয়েছে। আমার খুব ভালো লাগছে। ঘোষণা করছি, প্রতি ১৫ দিন পর কবিতা পাঠের আসর বসবে। প্রতি এক মাস পর সংকলন বের হবে।’