স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় যুবকের কারাদন্ড

241

দামুড়হুদার ইউএনও দীপ্তিময়ী জামানের মোবাইল কোর্ট পরিচালনা
নিজস্ব প্রতিবেদক:
দামুড়হুদায় স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্তের অভিযোগে শান্ত (২০) নামের এক যুবকের এক মাসের বিনাশ্রম কারাদ- দিয়েছেন মোবাইল কোর্ট। গতকাল শুক্রবার বিকেলে দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দীপ্তিময়ী জামান এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। দ-প্রাপ্ত যুবক শান্ত উপজেলার গোবিন্দহুদা গ্রামের জাকির হোসেনের একমাত্র ছেলে।
জানা গেছে, দামুড়হুদা উপজেলার গোবিন্দহুদা গ্রামের জাকির হোসেন ওরফে সেকরিফাইজের একমাত্র ছেলে শান্ত বেশ কিছুদিন ধরে প্রতিবেশী জনৈক ব্যক্তির মেয়ে ও দামুড়হুদা পাইলট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রীকে স্কুলে যাওয়া-আসার পথে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ওই স্কুলছাত্রী নিজ বাড়ি থেকে পার্শ্ববর্তী নানির বাড়ি যাওয়ার সময় বাড়ির অদূরে একটি গলির মধ্যে একা পেয়ে হাত ধরে টানাহেঁচড়া করে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে বখাটে শান্ত। বিষয়টি জানতে পেরে যুবক শান্তকে উত্তম-মাধ্যম দেন স্থানীয় কয়েকজন যুবক। পরে ওই স্কুলছাত্রীর পিতা বিষয়টি দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে জানালে তিনি ঘটনাস্থল গোবিন্দহুদায় ছুটে যান। তিনি সেখানে উপস্থিত স্থানীয় লোকজনসহ উভয় পক্ষের কাছে ঘটনার বর্ণনা শোনেন এবং মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। পরে অভিযুক্ত শান্ত মোবাইল কোর্টে নিজের দোষ স্বীকারের পর মোবাইল কোর্টের বিচারক দ-বিধির ১৮৬০-এর ৫০৯ ধারায় এক মাসের বিনাশ্রম কারাদ-ের আদেশ দেন। দামুড়হুদা মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) কামরুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সার্টিফিকেট সহকারী জিহন আলী, আইসিটি টেকনিশিয়ান খাইরুল কবির দিনার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কাজে সহায়তা করেন।