সেলুলয়েড পর্দায় ‘শীলা’ চরিত্রে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

40

বিনোদন প্রতিবেদন
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এবার পর্দায় হচ্ছেন মা আনন্দ শীলা। ছবিটি পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন ব্যারি লেভিনসন। ‘হলিউড রিপোর্টার’-এর প্রতিবেদন অনুসারে ছবির একজন প্রযোজকের ভূমিকাতেও রয়েছেন প্রিয়াঙ্কা। লেভিনসন পরিচালিত ‘শীলা’ ছবিতে আধ্যাত্মিক গুরু বলে পরিচিত ওশোর ব্যক্তিগত সচিব ছিলেন মা আনন্দ শীলা। তার জীবনের ওপরই তৈরি হবে এই ছবি। নেটফ্লিক্সের একটি ডকুমেন্টরি ‘ওয়াইল্ড ওয়াইল্ড কান্ট্রি’র মাধ্যমেই প্রথমবার পর্দায় উঠে আসে মা আনন্দ শীলার গল্প। ১৯৮১ থেকে ১৯৮৫ আধ্যাত্মিক গুরু রজনীশ ওরফে ওশোর ব্যক্তিগত সচিব হিসেবে কাজ করেন আনন্দ শীলা। তিনি রজনীশপুরম আশ্রমের দায়িত্বেও ছিলেন। মার্কিন মুলুকে ছিল রজনীশের এই আশ্রম। এক সময় এই শীলার নেতৃত্বেই রজনীশের অনুগামীরা মার্কিন মুলুকের সালাদ বার ও রেস্তোরাঁগুলোতে বিষ মেশানোর ঘটনায় জড়িয়ে পড়ে। অসুস্থ হয়ে পড়েন ৭৫০ জন মানুষ। ১৯৮৪ সালে ওরেগান প্রদেশে বায়োটেরর অ্যাটাকে দোষী প্রমাণিত হন শীলা। যেটা মার্কিন ইতিহাসে অন্যতম বড় আক্রমণ ছিল। এই ঘটনায় দোষী প্রমাণিত হয়েছিলেন শীলা, জেল হয়েছিল তার। পরবর্তীকালে দেশে ফিরে আসেন রজনীশ। তবে জেল থেকে বের হওয়ার পর শীলাই আবার ফাঁস করেছিলেন নানা কথা। সেই শীলার ভূমিকাতেই দেখা যাবে প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে।