সিসি টিভি ক্যামেরার ফুটেজে চোর শনাক্ত

27

চুয়াডাঙ্গার দৌলাতদিয়াড়ে নাজ এন্টারপ্রাইজে ট্রাক ভিড়িয়ে দুঃসাহসিক চুরি!
বিশেষ প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গা শহরতলীর দৌলতদিয়াড় কোরিয়া গোডাউনের পার্শ্ববর্তী সরদার মার্কেটের নাজ এন্টারপ্রাইজে দুঃসাহসিক চুরির ঘটনা ঘটেছে। গতকাল মঙ্গলবার ভোর সাড়ে চারটার দিকে ট্রাক ভিড়িয়ে ৪০ মিনিট ধরে তা-ব চালায় ১০-১২ জনের চোর চক্র। এ সময় চোরেরা সেখান থেকে ইজিবাইকের ১০টি ব্যাটারি ও দুটি টায়ার নিয়ে যায়। তবে আশপাশের লোকজন টের পেয়ে চিৎকার করলে তারা পালিয়ে যায়। এ কারণে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কম হয়েছে।
সিসি টিভি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, দোকানের বাইরে লাগানো প্রথম সিসি টিভি ক্যামেরা অন্য দিকে ঘুরিয়ে দিচ্ছে চোর চক্রের একজন। যেন তাদের কর্মকা- ক্যামেরার মাধ্যমে রেকর্ড না হয়। এরপর তালা ভেঙে দোকানের ভেতরে প্রবেশ করে তারা।
দোকানের ভেতরে থাকা ক্যামেরায় দেখা যায়, চোর চক্রের আরও চার-পাঁচজন সদস্য দোকানের ভেতর ঢুকে ব্যাটারি বের করে নিয়ে যাচ্ছে। হঠাৎ পরিস্থিতি বেগতিক দেখে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে তারা। তবে টানা ৪০ মিনিটেরও বেশি সময় এ তা-ব চললেও সেখানে দায়িত্বে থাকা নৈশপ্রহরী কিছুই টের পাননি বলে অভিযোগ দোকান মালিকের।
এ প্রসঙ্গে নাজ প্লাইড গ্যালারি ও নাজ এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী আব্দুস সালাম সময়ের সমীকরণকে বলেন, ‘প্রতিদিনের ন্যায় দোকান বন্ধ করে আমরা ও আমাদের কর্মচারীরা বাড়িতে চলে যাই। খুব সকালে খবর পাই, দোকানে চুরির ঘটনা ঘটেছে। এরপর দোকানে এসে সিসি টিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে চুরির ঘটনা নিশ্চিত হয়। এ ছাড়া দেখতে পাই, ভেতরে থাকা ব্যাটারিগুলোর মধ্যে ১০টি নেই এবং দুটি টায়ার নেই।’
খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং দোকান মালিক ও স্থানীয় লোকজনের মুখ থেকে ঘটনার বর্ণনা শোনে। এ সময় দোকানে থাকা সিসি টিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে চোর চক্রের একজনকে শনাক্ত করেন স্থানীয় লোকজন। এর মধ্যে একজন মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার বারাদী চাঁদপুরের মৃত আমির উদ্দিনের ছেলে রিয়াজ উদ্দিন (৩৫)। এ ঘটনায় দোকান মালিক আব্দুস সালাম থানায় একটি অভিযোগ করলে চোর ধরতে অভিযানে নামে পুলিশ। তবে এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে একটি বিশ্বস্ত সূত্রের তথ্য মতে, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে মেহেরপুরের বারাদী বাজারের একটি চায়ের দোকান থেকে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। কিন্তু আটকের বিষয়টি সঠিক নয় জানিয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ ফখরুল আলম খান সময়ের সমীকরণকে বলেন, ‘চুরির খবর পাওয়া মাত্র সেখানে পুলিশ পাঠিয়ে খোঁজখবর নিয়েছি। আমরা ওই দোকানে থাকা সিসি টিভি ক্যামেরার ফুটেজের মাধ্যমে চোর শনাক্ত করেছি। অভিযান চলছে, শিগগিরই এর সঙ্গে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় নেওয়া সম্ভব হবে।’