সাইফের সেঞ্চুরির পরও সিরিজ হারল বাংলাদেশ

27

খেলাধুলা ডেস্ক:
দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ ইমাজিং দলকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন সাইফ হাসান। কিন্তু তাতে কোনো লাভ হলো না। বোলারদের ব্যর্থতা আর বৃষ্টি আইনে হেরে গেল বাংলাদেশ ইমাজিং দল। তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশকে সাত উইকেটে হারিয়ে সিরিজ জিতে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা ইমাজিং দল। বাংলাদেশের দেওয়া ২৭০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কার ইনিংসে বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় বৃষ্টি। যে কারণে দীর্ঘক্ষণ ম্যাচ বন্ধ থাকে। ঘণ্টা খানেক অপেক্ষার পর বৃষ্টি থামলে বৃষ্টি আইনে লঙ্কানদের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৪ ওভারে ১৯৯। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকে ঝড় তুলেন ওপেনার পাথুম নিশাঙ্কা। তাঁর অপরাজিত ৭৮ বলে ১১৫ ও ভানুকার ৩২ বলে ৫৫ রানের ঝড়ে ইনিংসে ২৪ বল আগেই জয় তুলে নেয় সফরকারীরা। এরআগে শ্রীলঙ্কার ইমাজিং দলের বিপক্ষে আজ শনিবার সেঞ্চুরিসহ দারুণ এক ইনিংস খেলেন সাইফ। ১৩০ বলের ইনিংসটি ছিল চার বাউন্ডারি এবং সাতটি ছক্কা দিয়ে সাজানো। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানের ইনিংসে ভর করে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে অতিথিদের সামনে ২৭০ রানের লক্ষ্য দাঁড় করায় বাংলাদেশ। তিন ম্যাচের সিরিজে প্রথম ম্যাচেও তুলনামূলক উজ্জ্বল ছিলেন সাইফ। প্রথম ম্যাচে দল হারলেও নিজের ব্যক্তিগত হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। দ্বিতীয় ম্যাচে খেলেন ২৭ রানের ইনিংস। আর আজ শেষ ম্যাচে তিন অঙ্ক স্পর্শ করলেন। খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। ইনিংসের শুরুটা ভালো হয়নি স্বাগতিকদের। দলীয় ৯ রানে ফিরে যান ওপেনার নাঈম শেখ। এরপর নাজমুল হাসান শান্তর সঙ্গে জুটি বাঁধেন সাইফ। দুজন মিলে গড়েন ৭৪ রানের জুটি। শান্ত-ইয়াসির আলী ফিরে গেলে কিছুটা চাপে পড়ে স্বাগতিকরা। এরপর আফিফকে নিয়ে শুরু হয় সাইফের প্রতিরোধ। চতুর্থ উইকেট জুটিতে দুজন মিলে যোগ করেন ১২৫ রান। এর মধ্যেই সাইফ তুলে নেন সেঞ্চুরি। সাইফ সাজঘরে ফিরলে জাকির হাসানকে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশকে ২৬৯ রানের পুঁজি এনে দেন আফিফ। ৭০ বলে ছয়টি চার ও এক ছক্কায় ৬৮ রানে অপরাজিত থাকেন তরুণ এই অলরাউন্ডার।