শ্রী শ্রী তারকব্রহ্ম মহানামযজ্ঞানুষ্ঠান ও অষ্টকালীন লীলা কীর্তন

35

চুয়াডাঙ্গায় আজ থেকে শুরু হচ্ছে দিলীপ কুমার আগরওয়ালা ও তাঁর পরিবারবর্গের আয়োজনে
বিশেষ প্রতিবেদক:
প্রতিবারের ন্যায় এবারও দেশমাতৃকা ও বিশ্বজননীর সব সন্তানদের মঙ্গল কামনায় চুয়াডাঙ্গা ঐতিহ্যবাহী পান্না (রূপছায়া) সিনেমা হল প্রাঙ্গণে ৮ম বারের মতো শুরু হয়েছে ২৪ প্রহরব্যাপী শ্রী শ্রী তারকব্রক্ষ মহানামযজ্ঞানুষ্ঠান। তবে এবারের আয়োজনের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে শ্রী শ্রী রাধা গোবিন্দের অষ্টকালীন মহা লীলা কীর্তন, বার্ষিক মহোৎসব। আজ রোববার রাত ১১টায় মাথাভাঙ্গা নদী থেকে সংকল্প যাত্রাযোগে ঘটে জল নিয়ে শুভ অধিবাসের মধ্য দিয়ে শুরু হবে তারকব্রক্ষ মহানামযজ্ঞানুষ্ঠান। একটানা পাঁচ দিনব্যাপী মহানামযজ্ঞানুষ্ঠান শেষে ১৮ই অক্টোবর ভোগ আরতি ও প্রসাদ বিতরণের মধ্য দিয়ে শেষ হবে তারকব্রক্ষ মহানামযজ্ঞানুষ্ঠান।
স্বর্গীয় দোয়ারকা দাস আগরওয়ালা, তাঁর স্ত্রী স্বর্গীয় পান্না আগরওয়ালা ও দিলীপ কুমার আগরওয়ালার মাতা স্বর্গীয় তাঁরা দেবীর স্মরণে পাঁচ দিন একটানা ভগবানের নামকীর্তন এবং মহাপ্রসাদ বিতরণের মধ্য দিয়ে চলবে এ যজ্ঞানুষ্ঠান। এবারের যজ্ঞে ভক্তদের মধ্যে ভগবানের নামকীর্তন পরিবেশন করবে আটটি সম্প্রদায় এবং লীলা রাসমৃত স্মরণে শ্রী শ্রী রাধা গোবিন্দের অষ্টকালীন মহা লীলা কীর্তন পরিবেশন করবে দেশবরেণ্য আরও তিনটি সম্প্রদায়। এ মহানামযজ্ঞনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে চুয়াডাঙ্গাসহ আশপাশ এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের সব স্তরের মানুষের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।
মহানামযজ্ঞানুষ্ঠানের আয়োজক ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, এফবিসিসিআইয়ের সহসভাপতি ও বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির সাধারণ সম্পাদক সিআইপি বাবু দিলীপ কুমার আগরওয়ালা বলেন, অন্যবারের মতো এবারও সব ভক্তরা যাতে সুষ্ঠুভাবে প্রসাদ গ্রহণ করতে পারেন, সে জন্য সব স্বেচ্ছাসেবককে আগে থেকেই সচেতন করে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া যজ্ঞস্থলসহ আশপাশ এলাকা জুড়ে সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সবশেষে দলমত-ধর্ম-নির্বিশেষে অনুষ্ঠানটি সার্থক করে তোলার জন্য সব স্তরের মানুষের কাছে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।
শ্রী শ্রী তারকব্রক্ষ মহানামযজ্ঞানুষ্ঠানে সাধারণত বাবু দিলীপ কুমার আগরওয়ালার দাদাজি স্বর্গীয় দোয়ারকা দাস আগরওয়ালা ও দাদীজি স্বর্গীয় পান্না আগরওয়ালার জন্য প্রার্থনা করা হয়। তবে এবার মাতা স্বর্গীয় তাঁরা দেবীর জন্যও বিশেষ প্রার্থনা করা হবে। এ মহানামযজ্ঞানুষ্ঠানে বাবু দিলীপ কুমার আগরওয়ালার বাবা ওম প্রকাশ আগরওয়ালা, ছোট ভাই পিণ্টু আগরওয়ালা, সহধর্মিনী সবিতা আগরওয়ালাসহ পরিবারের অন্য সদস্য ও শুভাকাক্সক্ষীরা উপস্থিত থাকবেন।