শ্রীলঙ্কায় ২০২১-এর জুনে হতে পারে এ বছরের বাতিল এশিয়া কাপ

20

খেলাধুলা ডেস্ক:
এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল বৃহস্পতিবার এই বছরের এশিয়া কাপ স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যা হওয়ার কথা ছিল সেপ্টেম্বরে। তবে পরের বছর ২০২১-এর জুনে হতে পারে এশিয়া কাপ বলে মনে করা হচ্ছে। সেই লক্ষ্যেই কাজ করছে এসিসি। কোভিড-১৯-এর দাপটে এখনই কোনও টুর্নামেন্ট করা সম্ভব হচ্ছে না। এই পরিস্থিতিতে স্থগিত রাখা ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ করার ভাবনা-চিন্তা সামনে চলেছে এসেছে। এমন অবস্থায় সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বরের মধ্যে হতে পারে আইপিএল। কারণ অক্টোবর-নভেম্বরে হতে চলা টি২০ বিশ্বকাপও পিছিয়ে যাওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে।
একদিন আগেই বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এই টুর্নামেন্ট বাতিলের কথা জানিয়েছিলেন। এই বছরের এশিয়া কাপ আয়োজনের কথা ছিল পাকিস্তানের। পরেরটা শ্রীলঙ্কার। কিন্তু কোভিড পরিস্থিতির কারণ দেখিয়ে সেটা শ্রীলঙ্কার সঙ্গে অদল-বদল করে নেয়। কিন্তু এ বছর সেটা হচ্ছে না। একবছর পিছিয়ে যাওয়া নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে। এ বার টি২০ বিশ্বকাপ স্থগিতের অপেক্ষা। যা হওয়ার কথা ছিল অক্টোবর-নভেম্বরে। এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল টুইট করে জানিয়েছে, ‘‘কোভিড অতিমারির পরিস্থিতির দিকে লক্ষ্য রেখে এসিসির এক্সিকিউটিভ বোর্ড এশিয়া কাপ স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যা এ বছর সেপ্টেম্বরে হওয়ার কথা ছিল। এক্সিকিউটিভ বোর্ড একাধিকবার আলোচনায় বসেছে এই পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা করার জন্য।” এসিসি বোর্ডের অংশ বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও সচিব জয় শাহ-ও জানিয়ে দিয়েছেন, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিষয়ে কোনও ঝুঁকি নেওয়া যাবে না।
‘বোর্ড চেয়েছিল নির্ধারিত সময়েই টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে। কিন্তু রয়েছে ট্র্যাভেল রেস্ট্রিকশন দেশ নির্বিশেষে কোয়ারিন্টিনের ধরণ আলাদা, স্বাস্থ্যের ঝুঁকি এবং সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং মেনে চলা যা টুর্নামেন্ট হলে সম্ভব নয়। এনডিটিভি