শাস্তিভোগ শেষে মুক্তি পাওয়া সিয়ামের পুনর্বাসন

159

মেহেরপুর জেলা কারাগার কর্তৃপক্ষের প্রশংসনীয় উদ্যোগ
মেহেরপুর অফিস:
মেহেরপুর জেলা অপরাধ সংশোধনী কেন্দ্রের সহযোগিতায় মাদক মামলায় দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত সিয়াম (২৭) মেহেরপুর কারাগার থেকে শাস্তিভোগ করে মুক্তি পেয়ে বের হওয়ার পরপরই তাঁর পুনর্বাসনের লক্ষে একটি নতুন রিকশা প্রদান করা হয়েছে। লঘু অপরাধী, প্রথম অপরাধী এবং আইনের সংস্পর্শে আসা সমাজের অপরাধীদের স্বাভাবিক জীবনে অভ্যস্ত করে গড়ে তোলার লক্ষে কাজ করে যাচ্ছে মেহেরপুর জেলা কারগার কর্তৃপক্ষ। এ লক্ষে মেহেরপুর কারাগার থেকে শাস্তিভোগ করে মুক্তি পাওয়া সিয়াম হোসেনকে পুনর্বাসনের জন্য একটি নতুন রিকশা প্রদান করা হয়। সিয়াম হোসেন মেহেরপুর সদর উপজেলার শোলমারী গ্রামের বাঙ্গালপাড়ার সেকেন্দার ভাটুর ছেলে। তিনি হেরোইন মামলায় দুই বছর সাজা ভোগ করে মুক্তি পাওয়ায় স্বাবাভিকভাবে জীবনযাপন করার লক্ষে গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের অর্থায়নে জেলগেটে সিয়ামকে ফুলের তোড়া এবং একটি নতুন রিকশা প্রদান করা হয়।
স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক তৌফিকুর রহমান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সিয়ামের হাতে এ রিকশা তুলে দেন। এ সময় জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক কাজী কাদের ফজলে রাব্বি, জেল সুপার এ কে এম কামরুজ্জামান, জেলার শরিফুল ইসলাম, ডেপুটি জেলার মাসুদ রানা, সিয়ামের পিতা সদর উপজেলার শোলমারি গ্রামের সেকেন্দার ভাটুসহ জেলখানা এবং সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, সিয়াম ৯ গ্রাম হেরোইন রাখার দায়ে ২০১৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর আদালত তাঁকে ২ বছরের সশ্রম কারাদ- দেন। জেলখানায় ভালো আচরণ করার জন্য কারা কর্তৃপক্ষ তাঁর ৩ মাস ২৪ দিন সাজা মওকুফ করেন।