রাজকীয় প্রত্যাবর্তনে কোহলিকে টপকে গেলেন স্মিথ

63

খেলাধুলা ডেস্ক:
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কেপটাউন টেস্টে বল টেম্পারিংয়ের দায়ে একটি বছর জাতীয় দলের হয়ে খেলা থেকে বিরত থাকেন বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথ। অবশেষে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপ দিয়ে ফিরেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। ওয়ানডের পর এবার নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দীর্ঘ ১৮ মাস পর অ্যাশেজ সিরিজ দিয়ে প্রত্যাবর্তন করেছেন টেস্ট ক্রিকেটে। অ্যাশেজের প্রথম দিনে অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক যেভাবে ব্যাট করলেন তাতে মনে করিয়ে দিলেন পুরনো বীরত্বের কথা। সেঞ্চুরি করে প্রত্যাবর্তনটা স্মরণীয় করে রাখলেন স্মিথ। অ্যাশেজ সিরিজের প্রথম ইনিংসে খেলেন ২১৯ বলে ১৪৪ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস। সেইসঙ্গে বিরাট কোহলিকে পেছনে ফেলে ইতিহাসের দ্বিতীয় দ্রুততম ব্যাটসম্যান বনে গেছেন তিনি। ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে এজবাস্টনে ক্রিস ওকসের বলে এক রান নিয়ে টেস্ট ইতিহাসের দ্বিতীয় দ্রুততম ব্যাটসম্যান হিসেবে ২৪ সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েন স্মিথ। এই রেকর্ড করতে তার লেগেছে ১১৮ ইনিংস। অন্যদিকে ভারত অধিনায়ক কোহলির ২৪ সেঞ্চুরি এসেছিল ১২৩ ইনিংসে। কোহলি দ্বিতীয় স্থানে বসেন স্বদেশী শচীন টেন্ডুলকারকে টপকে। সাবেক ভারতীয় কিংবদন্তি ব্যাটসম্যানের সমান সেঞ্চুরি পেতে খেলতে হয়েছে ১২৫ ইনিংস। তবে এই জায়গায় এখনও নিজের রেকর্ড অক্ষুন্ন রেখেছেন স্যার ডোনাল্ড ব্রাডম্যান। মাত্র ৬৬ ইনিংসে ২৪ সেঞ্চুরি করেছিলেন ক্রিকেটের ‘দ্য ডন’। কোহলিকে ছাড়িয়ে যাওয়ার দিনে স্বদেশী ওয়ালি হ্যামন্ড ও ডেভিড গাওয়ারের পাশে স্থান করে নিয়েছেন স্মিথ। অ্যাশেজে ৯টি সেঞ্চুরি করে হ্যামন্ড ও গাওয়ারকে ছুঁয়ে ফেলেছেন তিনি। তবে অ্যাশেজে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি করার রেকর্ডটি ধরে রেখেছেন ব্রাডম্যান। ১৯ সেঞ্চুরি করে সবার শীর্ষে আছেন তিনি। এর পরের স্থানে জ্যাক হবস (১২) ও স্টিভ ওয়াহ (১০)।