যেসব নারীর জরায়ু ও স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশি

125

স্বাস্থ্য প্রতিবেদন
নারীদের জন্য জরায়ু ও স্তন ক্যান্সার খুবই ভয়াবহ একটি রোগ। ব্যয়বহুল এই রোগে বিশ্বে প্রতি বছর অনেক রোগী মারা যাচ্ছেন। যেসব নারী কর্মক্ষেত্র ও বাড়িতে বেশিরভাগ সময় বসে কাটান, তাদের জরায়ু ও স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি। সম্প্রতি সুইডেনের লুন্ডা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় জরায়ু ও স্তন ক্যান্সার সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ অনেক তথ্য জানা গেছে। গবেষণা তথ্যটি সম্প্রতি আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন ফর ক্যান্সার রিসার্স ইন ফিলাডেলফিয়াতে উপস্থাপন করা হয়। গবেষণা তথ্য থেকে জানা গেছে, গবেষকরা ২৫ বছর ধরে প্রায় ২৯ হাজার নারীর ওপর এ গবেষণা চালিয়েছেন। তাদের পর্যবেক্ষণের আওতায় রাখা হয়েছিল বয়স ২৫-৬৪ বছরের নারীদের। তারা অবশ্য শুরুতে ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন না। গবেষকরা নারীদের তিনটি ভাগে বিভক্ত করে পর্যবেক্ষণ করেন। প্রথমভাগে ছিলেন, যেসব নারী অফিসে কাজ করেন কিন্তু কোনো খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করেন না। আর দ্বিতীয় ভাগে ছিলেন যারা অফিসে কাজ করেন এবং বিনোদনের জন্য খেলাধুলায়ও অংশগ্রহণ করেন এবং তৃতীয় ধাপে ছিলেন ওই সব কর্মজীবী নারী, যাদের কর্মের প্রয়োজনে বেশিক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতে হয় এবং খেলাধুলাতেও অংশগ্রহণ করেন। দীর্ঘ এই গবেষণাতে দেখা গেছে, যেসব নারী কর্মক্ষেত্রে কিংবা অবসর সময়ে সারাক্ষণ বসেই কাটান, তারা কর্মক্ষেত্রে সারাক্ষণ বসে না থাকা নারীর তুলনায় ২.৪ শতাংশ স্তন ও জরায়ু ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। ঋতুচক্র বন্ধের আগেই স্তন ও জরায়ুর ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন তারা। গবেষকরা কর্মজীবী নারীদের সারাক্ষণ বসে না থেকে ছোট ছোট কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন। যেমন কফি খাওয়া কিংবা একটু হাঁটাহাঁটি করা।