যেকোনো পরিস্থিতিতে সবার পাশে থাকার অঙ্গীকার

16

চুয়াডাঙ্গায় তারেক রহমানের উপহার প্রদানকালে বিএনপি নেতা শরীফ
বিশেষ প্রতিবেদক:
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের ক্ষতিগ্রস্ত ও নির্যাতিত নেতা-কর্মী-সমর্থকদের পরিবারের মধ্যে দেশনায়ক তারেক রহমানের পক্ষে উপহার পৌঁছে দিলেন জেলা বিএনপির সদস্য ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী শরীফুজ্জামান শরীফ। ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে গত বুধবার চুয়াডাঙ্গা সদরের আলুকদিয়ার ইউনিয়ন, মোমিনপুর ইউনিয়ন বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিএনপি নেতা শরীফের সহযোগিতায় এসব উপহার-সামগ্রী বিতরণ করা হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও পৌর কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মনি, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আবুবক্কর সিদ্দিক আবু, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও মহিলা দলের নেত্রী জাহানারা পারভীন, পৌর বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিকুল ইসলাম পিটু, জেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আশাদুল হক বটুল, জেলা জাসাস’র সাধারণ সম্পাদক মো. সেলিমুল হাবিব সেলিম, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহেদ মোহাম্মদ রাজিব খান, জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি হাফিজুল ইসলাম মুক্ত, শামসুল হক ঝন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক শামিম হাসান টুটুল, জেলা যুবদলের নেতা হাফিজুর রহমান হ্যাপি, পৌর যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক অপু মালিক, জেলা সেচ্ছসেবক দলের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক রাজীব, তাঁতি বিষয়ক সম্পাদক মহাসিন আলী, শিল্প বিষয়ক সম্পাদক শাহা জামাল, আমানুল্লাহ বাবুল, রুবেল হাসান, আলোকদিয়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান, এরশাদ আলী, এমএ হাসান, লাল্টু, আখতার, মোমিনপুর ইউনিয়ন বিএনপি’র নেতা ও কাউন্সিলর সানোয়ার হোসেন, এসএম হাসান, রুকমান হোসেন, জিনারুল, লালচাঁদ, তুহিন ইসলাম, সানোয়ার, আব্দুল সালাম, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক আমান উল্লাাহ আমান, আরিফ আহমেদ শিপলব, মিশা, ইকবাল প্রমুখ।
পরবর্তীতে চুয়াডাঙ্গা জেলা সেচ্ছাসেবক দল, যুবদল ও ছাত্রদল নেতা-কর্মীদের মাঝে উপহার-সামগ্রী বিতরণ করেন শরীফুজ্জামান শরীফ। এ সময় তিনি বলেন, ‘করোনাভাইরাস প্রার্দুভাবের কারণে সব শ্রেণি-পেশার মানুষ আজ ঘরবন্দি। কাজকর্ম বন্ধ থাকায় অস্বচ্ছল, নিম্নবিত্ত ও খেটে খাওয়া মানুষদের ঘরে খাবার নেই। সরকারের পক্ষ থেকে মিডিয়ায় বিশাল ঘোষণা দিয়ে নামকাওয়াস্তে ত্রাণ সামগ্রী দেয়া হচ্ছে। তাও চুরি করে খাচ্ছে খোদ আওয়ামী লীগের জনপ্রতিনিধি ও নেতাকর্মীরা। এ অবস্থায় আর্তমানবতার সেবায় নেতাকর্মীদের সর্বদা নিয়োজিত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন দেশনায়ক তারেক রহমান। তারই নির্দেশে দলমত নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষের ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিচ্ছি আমরা।’ তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হামলা-মামলায় নির্যাতিত, নিষ্পেষিত নেতাকর্মীসহ যে সব ত্যাগী নেতাকর্মীরা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের পরিবারগুলোকে স্বাবলম্বী করার উদ্যোগ নিয়েছি। তারেক রহমানের নির্দেশে প্রথম পর্যায়ে সেই সব পরিবারকে সেলাই মেশিন ও খাদ্য সামগ্রী দেয়া হয়েছে। যে কোন পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষ ও দলীয় নেতাকর্মীদের পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছি। ইনশাল্লাহ, এ ধারা অব্যহত থাকবে।’