যুবকেরা খেলার মাঠে ফিরে এলে সমাজ মাদকমুক্ত হবে

18

আলমডাঙ্গা-হরিণাকু-ুু সোনালী অতীতের প্রীতি ফুটবল ম্যাচে মো. কলিমুল্লাহ
সমীকরণ ডেস্ক:
আলমডাঙ্গা ও হরিণাকু-ু সোনালী অতীত খেলোয়াড়দের মধ্যকার প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা ও ঝিনাইদহ জেলার হরিনাকু-ু উপজেলার কৃতী সন্তানেরা খেলায় অংশ নেন। তবে খেলাটি ২-২ গোলে সমতা নিয়ে শেষ হয়। তাই খেলা শেষে দুই ফুটবল দলের কৃতী খেলোয়াড়দের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। গতকাল বুধবার বিকেলে আলমডাঙ্গার কায়েতপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে এ খেলার আয়োজন করা হয়।
খেলা শুরুর আগে গ্রামবাসীকে নিয়ে মাদক, জঙ্গি ও সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ করা হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর ও আলমডাঙ্গা সার্কেল) মো. কলিমুল্লাহ। তিনি বক্তব্যে বলেন, বাংলার ঐতিহ্য খেলাধুলা সমাজ থেকে হারিয়ে যাওয়ায় মাদকের ব্যবহার বেড়েছে। আবারও খেলাকে ফিরিয়ে আনতে হবে। যুবকেরা খেলার মাঠে ফিরে এলে সমাজ মাদকমুক্ত হবে। তিনি আরও বলেন, একমাত্র খেলাধুলায় পারে যুবসমাজকে মাদক, জঙ্গি ও সন্ত্রাসমুক্ত করতে। এ জন্য সমাজের সব শ্রেণির মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। খেলার সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি করতে হবে। লেখাপড়ার পাশাপাশি ছাত্র-ছাত্রীদেরকে খেলাধুলাতে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।
পরে এক প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। দেওয়া-নেওয়ার হিসাবের খাতায় দুই দল দুটি করে চারটি গোল করে মাঠ ছাড়ে। ফলে আয়োজকেরা দুই দলকেই বিজয়ী ঘোষণা করেন। আলমডাঙ্গা একাদশের পক্ষ হয়ে খেলায় অংশ নেওয়া চুয়াডাঙ্গা সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ নওরোজ মোহাম্মদ সাঈদের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন হরিনাকু-ু একাদশের খেলোয়াড় চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর ও আলমডাঙ্গা সার্কেল) মো. কলিমুল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক (ফার্মেসী বিভাগ) ড. রুহুল কুদ্দুস শিপন, হরিণাকু-ু পৌর মেয়র শাহিনুর রহমান রেন্টু, এম বি এম গ্রুপের সিইও সাইফুর রহমান লিমন, ঘোলদাড়ি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন, খাসকররা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আজিবর রহমান, জিকু মল্লিক প্রমুখ। খেলাটি পরিচালনা করেন মুনসুর আলী, গোলাম হোসেন, গোলাপ হোসেন ও আলী হোসেন। ধারাভাষ্যে ছিলেন কাজি পিন্টু।